অনলাইন মাধ্যমে সরকারি সেবা এত সহজ জানতাম না

অনলাইন মাধ্যমে সরকারি সেবা এত সহজ জানতাম না
ছবিঃ সংগৃহীত

মানিকগঞ্জ থেকে মো. নজরুল ইসলাম।। ০৮ সেপ্টেম্বর, বুধবার।। ”প্রযুক্তির ইতিবাচক ব্যাবহার জানি,অনলাইন মাধ্যমে সকল সেবা গ্রহন করি,ডিজিটাল বিশ্ব গড়ি” এই ধরনের বিভিন্ন ¯শ্লোগানকে সামনে রেখে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক মানিকগঞ্জ সিংগাইর অঞ্চলের বায়রা ও সিংগাইর পৌরসভার বিভিন্ন কমিউনিটিতে সরকারি বেসরকারি সেবাদানকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে কমিউনিট পর্যায়ে সেবা পরিসেবা পাওয়ার কৌশল ও উপায় শীর্ষক সংলাপ মতবিনিময় ও পরিবেশবান্ধব বৃক্ষ বিতরণ কর্মসূচি পালন করছে।

গত ৬,৭ ও ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ সিংগাইর অঞ্চলের বাইমাইল মোল্লাপাড়া  ,বিনোদপুর ঋষিপাড়া ও গোবিন্দল এলাকায় নারী উন্নয়ন সমিতির আয়োজনে সংলাপ মতবিনিময় ও বৃক্ষ বিতরন কর্মসূচিতে সংগঠনের সভানেত্রী শিল্পী  আক্তার, ঝর্ণা রাণী দাস ও সুমা আক্তার এর সভাপতিত্তে ও বারসিক প্রকল্প সহায়ক রিনা আক্তার এর সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশগ্রহন করেন সিংগাইর উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান জনাব আনোয়ারা খাতুন,সিংগাইর পৌরসভার সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান  কাউন্সিলর পারভিন  আক্তার ও বায়রা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত ইউপি সদস্য নাছরিন আক্তার, সংগঠনের নারী নেত্রীদের মধ্যে শিল্পী  আক্তার,সুভা আক্তার,গীতা রাণী দাস ও সুবর্ণা রাণী দাস প্রমুখ। কর্মসূচিতে ধারনাপত্র পাঠ করেন বারসিক প্রকল্প কর্মকতা মো. নজরুল ইসলাম ও আছিয়া আক্তার।

প্রধান অতিথির আলোচনায় আনোয়ারা আক্তার বলেন।আপনার সেবা আপনাকেই নিতে হবে। কেউ  এসে আপনাকে খাওয়াইয়ে দিতে পারবে না।মাতৃত্বকালীন ভাতার জন্য নির্ধারিত ফরমে অনলাইন আবেদন করতে হবে। তারপর ইউপি সদস্যদের সুপারিশসহ জমা দিতে হবে। আবেদনের যোগ্যতা সঠিক হলে অবশ্যই আপনার একাউন্টে টাকা চলে আসবে।

তারপর কোন সমস্যা হলে আমরা তো আছিই।এখন বয়স্কা বিধবা,প্রতিবন্ধি সকল ভাতা ও বৃত্তির টাকা অনলাইন ও মোবাইল ব্যাকিং এর মাধ্যমে আপনার কাছে চলে আসবেই। সেবা পেতে কোন প্রকার ঘুষ,দুর্নীতীর আশ্রয় নেয়া যাবে না। সমস্যা হলে আমাকে জানাবেন। ঝর্ণা রাণী দাস বলেন অনলাইন মাধ্যমে সেবা পাওয়া এত সহজ আগে জানতাম না। আমার শ্বাশুরীর বই অফিসে নিয়ে গেলে চিন্তায় ছিলাম এখন দেখি টাকা মোবাইলে জমা হয়েছে। টাকা তুলতে পেরেছি। ইউপি সদস্য নাসরিন আক্তার বলেন- আপনাদের সেবা এখন আর কারো মাধ্যমে নয় সরাসরি অনলাইনেই হবে। তবে বিকাশে বা মোবাইল ব্যাংকিং মাধ্যমে এজেন্টরা কিছু ঝামেলা করছে এটিও সরকার খতিয়ে দেখছে। বারসিক এর মাধ্যমে আপনারা যে ভালো মানের পিয়ারা,বেল,জাম্বুরা,লেবু,তেতুল,কদবেল ও হরিতকিসহ যে গাছ পেলেন সেগুলো বিনামুল্যে বলে অবহেলা করবেন না। যতবেশি করে গাছটিকে বাচিয়ে উঠাতে পারলে আপনি ও আমরা সবাই উপকৃত হবো।