অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ঝালকাঠিতে গ্রামীন ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজারকে ১০ বছর কারাদণ্ড 

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ঝালকাঠিতে গ্রামীন ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজারকে ১০ বছর কারাদণ্ড 
ছবি: সংগৃহীত

আজমীর হোসেন তালুকদার, ঝালকাঠি: ঝালকাঠিতে গ্রামীন ব্যাংকের গ্রাহকদের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুদক এর দায়ের করা ( বিশেষ মামলা নং-৫/১৭)মামলার আসামী ব্রাঞ্চ ম্যানেজার আবুল কালামকে  ১০বছর কারাদন্ড ও ৪০ হাজার টাকা জরিমানা সাজা প্রদান করা হয়েছে। ৩০জুন বৃহস্পতিবার ঝালকাঠি সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক মোঃ শহিদুল্লাহ এ রায় প্রদানে করেছেন।

দুদক’র পক্ষে পিপি ও সিনিয়র আইনজীবী এড. মঞ্জুর হোসেন আদালতে মামলা পরিচালনা
করেন। রায় ঘোষনার সময় আসামী আবুল কালাম পালাতক ছিলেন।

দুদক’র পিপি এড. মঞ্জুর হোসেন জানান, ঝালকাঠিতে গ্রামীন ব্যাংকের একটি ব্রাঞ্চ ম্যানেজার আবুল কালাম বেশ কয়েকজন গ্রাহকের সঞ্চয় বহিতে ৯৪ হাজার
টাকা জমা করলেও ব্যাংকের রেজিষ্টার বহিতে উত্তোলন না করে তাদের টাকা আত্মসাত করে। পরবর্তীতে ভূক্তভুগী গ্রাহকেরা গ্রামীন ব্যাংকে যোগাযোগ করে
বিষয়টি জানতে পেরে ব্রাঞ্চ ম্যানেজার আবুল কালামের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন দুদক বরাবরে লিখিত অভিযোগ প্রদান করে।

বরিশাল দুদক এর সহকারী পরিচালক অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে সরেজমিন তদন্ত পূর্বক আসামী আবুল কালামকে দোষী সাব্যস্থ করে অভিযোগপত্র প্রদান করেন। স্বাক্ষ্য প্রমান শেষে সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালত দ:বি: ৪০৯ ও ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) ধারা ১০বছর কারাদন্ড সহ ৪০হাজার টাকা জরিমানা রায় ঘোষনা করেন।