আলোড়ন সৃষ্টিকারী ধাপেরহাটে হিন্দু পরিবারের উপর হামলার এক আসামী গাজীপুরে গ্রেফতার 

আলোড়ন সৃষ্টিকারী ধাপেরহাটে হিন্দু পরিবারের উপর হামলার এক আসামী গাজীপুরে গ্রেফতার 
ছবি: সংগৃহীত

আবু তাহের, স্টাফ রিপোর্টার।।গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাপুরের ধাপেরহাটে সনাতন ধর্মালম্বী (হিন্দু) মধুচন্দ্রের বাড়ীতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মধ্যরাতে অতর্কিত হামলা, ভাঙচুর ও চাঁদাদাবীর ঘটনার এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের চৌকস ও সুদক্ষ ইনচার্জ সেরাজুল হক সহ সঙ্গীয় পুলিশ টীম। 

ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ইনচার্জ সূত্রে জানা যায়,

গত ২৬ মে বৃহস্পতিবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে 

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের হাসানপাড়া গ্রামের মধুচন্দ্র দাস'র বাড়ীতে হামলা চালিয়ে বসতঘর-আসবাবপত্র ভাঙচুর ও লুটপাট  চালায় সংবদ্ধ হামলাকারীরা। এঘটনার পর গাইবান্ধা জেলায় সাধারণ মানুষের মাঝে উক্ত ঘটনাটি আলোড়ন সৃষ্টি করে। এঘটনায় ২৭ মে বেশ কয়েকজনকে আসামী করে সাদুল্লাপুর থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। 

ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দ্রুত আসামীদের গ্রেফতারের কথা বলেছিলেন ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সেরাজুল হক। 

এরই ধারাবাহিকতায় গাইবান্ধা জেলা সম্মানিত পুলিশ সুপার জনাব মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম পিপিএম (সেবা) মহোদয়ের সরাসরি দিকনির্দেশনায় ও সার্কেল অফিসার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব মোঃ আব্দুল আউয়াল ও অফিসার ইনচার্জ সাদুল্লাপুর থানা সাহেবের তত্ত্বাবধানে  ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের চৌকস, সুদক্ষ ও পরিশ্রমী পুলিশ কর্মকর্তা সেরাজুল হক সহ একটি চৌকস পুলিশ টিমের সহায়তায় অদ্য ৩১ মে রবিবার গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর থানার অন্তর্গত পূর্বচান্দুরা কবরস্থান এলাকা থেকে ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত এজাহারনামীয় পলাতক আসামী মোছাঃ নুরজাহান বেগম ওরফে মিরিকজানকে গ্রেফতার করেছে। 

ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের চৌকস ও সুদক্ষ ইনচার্জ সেরাজুল হক দৈনিক আলোকিত সকাল পত্রিকা'কে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, অপরাধী যেই হোক না কেন তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, মামলার অন্যান্য পলাতক আসামীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করে বিচারের নিমিত্তে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করতে জেলা পুলিশ বদ্ধপরিকর।