ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন:টেকনাফে ৮ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন:টেকনাফে ৮ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল
ছবিঃ সংগৃহীত

জাফর আলম,কক্সবাজার,২১ মার্চ।।প্রথম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে টেকনাফের ৫ ইউপিতে স্বতন্ত্র ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সাধারণ সদস্য ৩ জনসহ ৮ প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম বাতিল করেছে উপজেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা।জমার শেষ দিনে টেকনাফের ৫ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান, সাধারণ ও সংরক্ষিত আসনে ৫০১ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম জমা দেন। এতে চেয়ারম্যান পদে ৩৫ জন, সংরক্ষিত আসনে ৮০ জন ও সাধারণ আসনে ৩৮৬ জন।

শুক্রবার (১৯ মার্চ)টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত টেকনাফ সদর,সাবরাং,সেন্টমার্টিন, হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের প্রার্থীদের যাচাই-বাছাই করেন।টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনের পৃথক সম্মেলন কক্ষে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বেদারুল ইসলাম ও দায়িত্বপ্রাপ্ত রামু উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহফুজুল ইসলাম মনোনয়ন ফরম যাছাই-বাচাই কার্যক্রম শুরু করেন।ইউপি নির্বাচনের বাছাইয়ে ৫টি ইউনিয়নের প্রার্থীদের আয়কর তথ্য বিবরণী, হলফনামা,ঋণ খেলাপী ও ফরমে নানা ত্রুটির কারণে ৫ চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ৩ জনসহ ৮ প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম বাতিল করা হয়েছে।এরা হলেন টেকনাফ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী জিয়াউর রহমান জিহাদ (স্বতন্ত্র),আব্দুর রহমান (স্বতন্ত্র)ও আব্দুল ওয়াজেদ (জাতীয় পার্টি)।হোয়াইক্যং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল হোছাইন সিদ্দিকী (স্বতন্ত্র),মোঃ ফরিদুল আলম (স্বতন্ত্র) ও সাধারণ সদস্য পদে জাহিদ হোসেন (৭নং ওয়ার্ড)।হ্নীলা ইউনিয়নের সাধারণ সদস্য পদে মোঃ ইলিয়াছ (৫নং ওয়ার্ড) এবং সাবরাং ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে মোঃ হাশেম (৬নং ওয়ার্ড)।যাচাই-বাচাই শেষে টেকনাফের ৫টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান,সাধারণ ও সংরক্ষিত আসনে ৪৯৩ জন প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধতা ঘোষণা করা হয়েছে।এতে চেয়ারম্যান পদে ৩০ জন, সংরক্ষিত আসনে ৮০ জন ও সাধারণ আসনে ৩৮৩ জন।উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বেদারুল ইসলাম  বলেন,আসন্ন ইউপি নিবার্চন সুষ্ট-শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ ভাবে সম্পন্ন করতে কাজ চলছে।কেউ নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা।শুক্রবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম যাছাই-বাচাই কার্যক্রম শেষ করা হয়।এতে ফরমে নানা ত্রুটির কারণে ৪ ইউপিতে ৫ চেয়ারম্যান ও সাধারণ সদস্য ৩ জনসহ ৮ প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম বাতিল করা হয়েছে। যাদের মনোনয়ন ফরম বাতিল হয়েছে ওই সব প্রার্থীরা জেলা নির্বাচন কমিশন বরাবর আপিল করতে পারবে।