ঋণের দায়ে গাড়িতে পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

ঋণের দায়ে গাড়িতে পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা
ছবি: সংগৃহীত

রাস্তায় গাড়িতে আগুন দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয় লোকজন। পরবর্তীতে ফায়ারসার্ভিস এসে আগুন নেভায়। ভিতরে দেখা যায় এক ব্যক্তির মরদেহ। সামান্য কিছু দূরেই আধ পোড়া অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যা এক মহিলা এবং এক যুবক।

ঘটনাটি ভারতের। মঙ্গলবার বিকেলে এমন ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানিয়েছে, মৃত ব্যক্তির নাম রামরাজ ভাট। বয়স ৫৮। যে মহিলা এবং যুবককে ঝলসানো অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে, তাঁরা ওই ব্যক্তির স্ত্রী নন্দিতা এবং ছেলে নন্দন। এই দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।


পুলিশ জানায়, রামরাজ এক জন ব্যবসায়ী। বাজারে অনেক দেনা হয়ে গিয়েছিল। সেই দেনা মেটাতে না পেরে স্ত্রী-ছেলেকে নিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। সেই চেস্টায় নিজে মারা গেলেও অর্ধ পোড়া হয়ে জীবিত তার স্ত্রী ও সন্তান। মৃত রামরাজের বাড়ি সার্চ করে একটি সুইসাইড নোট পাওয়া যায় যাতে উল্লেখ আছে তিনি ঋণে জর্জরিত হয়ে ঋণ শোধ না করতে পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন। 

উল্লেখ্য ঘর থেকে স্ত্রী ও পুত্র নিয়ে দাওয়াতের কথা বলে বের হন রামরাজ। পথিমধ্যে গাড়ি থামিয়ে নিজের ও স্ত্রী সন্তানের  গায় পেট্রোল ঢেলে দেন। এর পর হঠাৎ গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিলে স্ত্রী সন্তান জীবন নিয়ে গাড়ি থেকে বের হতে পারলেও রামরাজ মারা যায়। পরবর্তীতে পুলিশ এসে আহতদের উদ্ধার করে। সূত্রঃ আনন্দবাজার পত্রিকা