কক্সবাজারে ঈদের রাতে অবৈধ চিরাই কাঠ ভর্তি পিকআপ আটক

কক্সবাজারে ঈদের রাতে অবৈধ চিরাই কাঠ ভর্তি পিকআপ আটক
ছবিঃ সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার।। ১৫ মে, শনিবার।। ঈদুল ফিতরের ছুটিতে বনকর্মীরা ব্যস্ত থাকার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে চোরাকারবারীরা চোরাই চিরাই কাঠ পাচারের মিশন ব্যর্থ করে দিয়েছেন উত্তর ও দক্ষিণ বনবিভাগের বিশেষ টহল দল।

ঈদের দিন (১৪ মে) রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টার দিকে কক্সবাজার উত্তর ও দক্ষিণ বনবিভাগের বিশেষ টহলদল অবকাশ ভ্রমনকালীন কক্সবাজার কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে চিরাই গর্জন কাঠ ভর্তি ( লম্বা তক্তা) একটি মিনি পিকআপ আটক করেছে।জব্দকৃত গর্জন চিরাই কাঠের পরিমান আনুমানি ৫৫ ঘনফুট বলে বনবিভাগ সুত্রে জানা গেছে। 
কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিশেষ টহল দলের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম আতা ইলাহী জানান, শুক্রবার ঈদের দিন (১৪ মে) রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টার দিকে কক্সবাজার উত্তর ও দক্ষিণ বনবিভাগের বিশেষ টহলদল অবকাশ ভ্রমন করছিলেন। এসময় চিরাই গর্জন কাঠ ভর্তি একটি মিনি পিক আপ
কক্সবাজার কলাতলী অভিমুখী যাওয়ার সময় সন্দেহ হলে গাড়িটি ধাওয়া করা হয়।
তিনি আরও জানান, কলাতলী এলাকায় চিরাই কাঠ ভর্তি মিনি পিকআপটি আটক করে গাড়ীতে পরিবহণকৃত চিরাই কাঠের বৈধ কাগজপত্র দেখাতে বলা হলে চালকসহ অন্য আরেকজন গাড়ী ফেলে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে কক্সবাজার উত্তর ও দক্ষিন বন বিভাগের বিশেষ টহল দল কতৃক যৌথ ভাবে পরিচালিত অভিযানে জব্দ করা গাড়ীসহ অবৈধ চিরাই গর্জন কাঠ জব্দ করে তা বন অফিস হেফাজতে আনা হয়েছে। 
কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের বিশেষ টহল দলের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সমীর রঞ্জন সাহা বলেন, আটককৃত চিরাই গর্জন কাঠের পরিমাণ প্রায় ৫৫ ঘনফুট। পলাতক ব্যক্তি ও আটক গাড়ীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
একটি সুত্র জানিয়েছেন, মাদার ট্রি গর্জন গাছের চিরাই করা কাঠগুলো অবৈধ ফিশির বোট নির্মাণে কক্সবাজার শহরের নুনিয়াছড়া ঘাটে আনছিল। পথিমধ্যে বনকর্মীরা চোরাকারবারিদের মিশন ব্যর্থ করে দেন।