কক্সবাজারে জনকণ্ঠের স্টাফ রিপোর্টার ছিনতাইকারীর কবলে : আটক-২

কক্সবাজারে জনকণ্ঠের স্টাফ রিপোর্টার ছিনতাইকারীর কবলে : আটক-২
আটককৃত ছিনতাইকারী দুইজন

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার।। দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ও কক্সবাজার জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এইচএম এরশাদ ছিনতাইকারী চক্রের কবলে পড়েছেন। জনতা ধাওয়া করে দুই ছিনতাইকারীকে আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করেছে।

সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে শহরের  লালদীঘির পাড় জামে মসজিদের দক্ষিণ পার্শ্বে এঘটনা ঘটেছে। 
তবে, ঘটনাটি নিচক ছিনতাই নয়, এটা হত্যার পরিকল্পনা বলে মনে করছেন অনেকে।
সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে শহরের  লালদীঘির পাড় জামে মসজিদের দক্ষিণ পার্শ্বে
 রাস্তা দিয়ে সিনিয়র সাংবাদিক এইচএম এরশাদ হেঁটে যাচ্ছিলেন। এ সময় দুই রোহিঙ্গা যুবক তাঁর মানিব্যাগ ছিনিয়ে নিতে ধস্তাধস্তি করেন।
এ দৃশ্য দেখে সিনিয়র সাংবাদিক এরশাদকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন শতাধিক জনতা। মুহুর্তে জড়ো হওয়া লোকজন দুই ছিনতাইকারীকে ধরে উত্তম-মাধ্যম দেয়।
ঘটনার খবর পেয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুনির উল গীয়াসের নির্দেশে এসআই আবছারের নেতৃত্বে একদল পুলিশসহ ঘটনাস্থলে পৌছেন। ধৃত দুই ছিনতাইকারী হাফেজ আহমদ ও মো: সাদেককে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেন জনতা। আটক দুই ছিনতাইকারী থানা হেফাজতে রয়েছে। আটক ছিনতাইকারীরা নিজেদেরকে কক্সবাজার শহরের নুনিয়াছড়ার বাসিন্দা দাবী করলেও অনেকে বলেছেন তারা রোহিঙ্গা।
এদিকে, প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনাটি নিচক ছিনতাই নয়, এটা হত্যার পরিকল্পনা বলে মনে করছেন অনেকে। কারণ প্রকাশ্যে একজন সিনিয়র সাংবাদিকের ব্যাগ নিয়ে টানা টানি, শুধু ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্য ছিল না। তাকে হত্যার পরিকল্পনাও হতে পারে।
তারা মনে করেন, সিনিয়র সাংবাদিক এইচএম এরশাদ সাম্প্রতিক সময়ে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী, ইয়াবা ব্যবসায়ী, ভুমিদস্যু সহ বিভিন্ন অপরাধীদের বিরুদ্ধে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করেছেন।
আটকদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ চালানো হলে ঘটনার রহস্য উদঘাটন হবে।