কক্সবাজারে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে কলেজ ছাত্র নিহত : আটক-১

কক্সবাজারে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে কলেজ ছাত্র নিহত : আটক-১
ছবিঃ সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার, ২৯ জুলাই।। কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুলে নুরুল হক লালু (১৯) নামের এক কলেজ ছাত্রকে ছুরিকাঘাত ও পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার রাত ১২টার দিকে খুরুশকুল পেঁচার ঘোনা খাম্বার গোড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত নুরুল হক লালু খুরুশকুল ইউনিয়নের মধ্যম ডেইল পাড়ার মনিরুল হকের ছেলে ও রামু সরকারী কলেজের একাদশ মানবিক বিভাগের ছাত্র। সে মানবিক সংস্থা, কক্সবাজার নামের একটি সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক সিএনজি চালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ ।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন নিহতের নিকটাত্মীয় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সাহেদ খান জানান, আমার স্ত্রীর বড় ভাইয়ের ছেলে নুরুল হক লালুকে পেঁচার ঘোনা হাম্বার গোরাস্থ নিজের ইজিবাইক (টমটম) গ্যারেজ থেকে বুধবার রাত ১২ টার সময় সিএনজি যোগে বাড়ী ফিরছিল। পথিমধ্যে একদল চিহ্নিত দুর্বৃত্ত সিএনজি গতিরোধ করে গাড়ি থেকে নামিয়ে তাঁর মুখ বেঁধে পার্শ্ববর্তী খালি মাঠে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে ছুরিকাঘাত ও পিটিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত্যু ঘোষণা করেন। তিনি জানান, হত্যাকারী এখনো চিহ্নিত হয়নি। কারাল, কেন তাকে হত্যা করেছে তা উদঘাটনের চেস্টা চলছে। 
ঘটনাটি ‘পরিকল্পিত’ মন্তব্য করে জড়িতদের দ্রুত চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন তিনি।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার এসআই আমজাদ জানান, মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে সিএনজি চালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।
আটক সিএনজি চালক পুলিশকে জানান, ৩ জন যুবক সিএনজির গতিরোধ করে তাঁর হাত-পা ও মুখ বেঁধে রাখে। এসময় তাঁরা যাত্রী নুরুল হক লালুকে টেনে গাড়ি থেকে নামিয়ে পাশের মাঠে নিয়ে গিয়ে হাত-মুখ বেঁধে ছুরিকাঘাত করে মৃত্যু নিশ্চিত হয়ে পালিয়ে যায়। তাঁরা চলে যাওয়ার পর কোনমতে হাত-পা ও মুখের বাধন খুলে এলাকার লোকজনকে খবর দিই। কিন্তু ততক্ষণে লালু মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।
ঘটনার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস।