কক্সবাজারে পরিবহন ধর্মঘটে আটকা পড়েছে পর্যটক

কক্সবাজারে পরিবহন ধর্মঘটে আটকা পড়েছে পর্যটক
ছবি: সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার, ৬ আগষ্ট।। কক্সবাজারে গণপরিবহন ধর্মঘটের কারণে বিপাকে পড়েছেন হাজার হাজার পর্যটক। আগাম ঘোষণা ছাড়া হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আটকা পড়েছে তারা। তেলের দাম বৃদ্ধির সাথে পরিবহন ভাড়া নির্ধারণ না হওয়ায় এই অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে।

শনিবার (৬ আগস্ট) কক্সবাজার কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, কলাতলী, সুগন্ধা সহ আশপাশের বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে এই চিত্র দেখা গেছে। 
শুক্রবার রাত থেকে ধর্মঘটের ঘোষণা দেয় হানিফ পরিবহন, সৌদিয়া, মারছা, এসআই পরিবহনের মালিক কতৃপক্ষ। তবে সকাল থেকে কিছু কিছু বাস ইচ্ছে মতো চড়া দাম নিয়ে গাড়ি ছেড়েছে। এই নিয়ে পর্যটক ও সাধারণ যাত্রীরা প্রতিবাদ জানিয়েছেন। 
শনিবার দুপুরের কক্সবাজার-চট্টগ্রাম রুটের বাসের নতুন ভাড়া নির্ধারিত হলেও অন্যান্য রুটের ভাড়া পরিবর্তন হয়নি। ফলে শুধুমাত্র চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটের কিছু বাস চলাচল শুরু হয়েছে। কিন্তু ঢাকাসহ অন্যান্য রুটে দূরপাল্লার  বাসগুলো এখনও চলাচল শুরু হয়নি। এসব গাড়ি বন্ধ থাকায় বৃহস্পতি ও শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটিতে কক্সবাজার আসা পর্যটকরা ভোগান্তিতে পড়েছেন।
আটকে পড়া পর্যটকেরা জানিয়েছেন, নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ায় হোটেল কক্ষ ছেড়ে দিয়ে বাস কাউন্টারে এসে দেখেন বাসের অঘোষিত ধর্মঘট। 
নোয়াখালী থেকে স্বপরিবারে বেড়াতে আসা কায়ূম উদ্দিন বলেন, হোটেল কক্ষ থেকে বাস টার্মিনালে এসেছি সকালে। কিন্তু বাস ছাড়ছে না; টিকিটও বিক্রি হচ্ছে না। এখন পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাস কাউন্টারে দাঁড়িয়ে আছি।
কুমিল্লা দেবীদ্বারের আনোয়ার একই কথা জানিয়ে বলেন, পরিবার নিয়ে বৃহস্পতিবার কক্সবাজারে বেড়াতে এসেছি। পূর্বনির্ধারিত মতো শনিবার সকালে বাসের টিকিট কাটতে গিয়ে বিপত্তিতে পড়ে যান। সকাল থেকে চেষ্টা করে দুপুর পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যায়নি।
এই বিষয়ে কক্সবাজার পরিবহন শ্রমিক নেতা নুরুল আমিন বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় সকাল থেকে দূরপাল্লার বাসগুলো নিজেদের মতো ভাড়া বাড়িয়ে যাত্রী উঠানোর চেষ্টা করে। কিন্তু অধিকাংশ যাত্রী বাড়তি ভাড়ায় যেতে রাজী হয়নি। ফলে বাস চলাচল বন্ধ ছিলো। তবে দুপুরের ভাড়া নির্ধারণ হলে আস্তে আস্তে বাস ছাড়তে শুরু করেছে।