কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলে আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে আগুন

কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলে আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে আগুন
ছবিঃ সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার, ৭ নভেম্বর।। কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শাহজাহান সিদ্দিকের নির্বাচনি অফিসে আগুন দেবার অভিযোগ উঠেছে বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আমিনের (মোটরসাইকেল ) বিরুদ্ধে।

শনিবার (৬ নভেম্বর) দিনগত রাতের কোনো এক সময় (অানুমানিক ৩টার) দিকে খুরুশকুল ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের তেতৈয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।
আগামী ১১ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আ.লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো.শাহজাহান সিদ্দিক বলেন, দলের নেতাকর্মীরা গভীর রাত পর্যন্ত কার্যালয়ে ছিলেন। তারা চলে যাওয়ার পর কার্যালয়ে আগুন দেওয় স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি সমর্থিত নুরুল আমিনের সমর্থকরা।
এতে সামিয়ানা, পোস্টার ছিড়ে ফেলা হয়, কিছু প্লাস্টিকের চেয়ার, ব্যানার এবং অফিসের সামনে টাঙিয়ে রাখা নৌকার প্রতিকৃতি পুড়ে যায়। স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুল আমিনের (মোটরসাইকেল) কর্মী-সমর্থকরা এতে জড়িত বলে অভিযোগ করেন তিনি। রবিবার সকালে তিনি তার কর্মী সমর্থকদের সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে এই তান্ডবতা দেখেন।
এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।
খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুল আমিন ( মোটরসাইকেল ) মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
খুরুশকুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন বলেন, শনিবার রাতে ১নং ওর্য়াডে তেতৈয়া এলাকায় নৌকার নির্বাচনি অফিসে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুরের ঘটনা শুনেছি। তবে কে বা কারা এঘটনা ঘটিয়েছে এবিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
কয়েকজন আওয়ামিলীগ সমর্থিত ভোটার জানান, বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আমিন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীকে দেখা নেওয়াসহ আওয়ামী লীগের উন্নয়নের বিরুদ্ধে কু-রুচিসম্পূর্ন বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন স্থানে ।
তারা আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সমর্থীত প্রার্থী শাহজাহান সিদ্দিকীর গোণজোয়ার দেখে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা যখন নিশ্চিত পরাজয় দেখছে ঠিক তখনই এমন ন্যাক্কার জনক ঘটনা ঘটাচ্ছে। 
কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মনীরুল গীয়াস মুঠোফোনে বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। এসআই মনছুরের নেতৃত্বে একদল পুলিশকে রাতেই ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। অভিযোগ পেলে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।