কানাইঘাটে প্রতিবন্ধীকে গলা কেটে হত্যা

কানাইঘাটে প্রতিবন্ধীকে গলা কেটে হত্যা

সিলেট অফিস।। ১৪ জুন, সোমবার।। সিলেটের কানাইঘাটে এক প্রতিবন্ধী যুবককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। তার নাম রুহুল আমিন ওরফে কুটি মনাই (২২)। তিনি সোনাতনপুঞ্জি গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের পুত্র।
সোমবার (১৪ জুন) সকাল অনুমান ৭টার দিকে উপজেলার ২নং লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির সীমান্তবর্তী সোনাতনপুঞ্জি গ্রামের এ ঘটনা ঘটে।
নিহতের বোন কুলছুমা বেগম ও তার পরিবারের সদস্যদের দাবি, নিহত রুহুল আমিন রোববার রাতে তার চাচা সমছুল হকের বাড়িতে যায়। সকালবেলা রুহুল আমিনকে গলা কেটে হত্যার খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে আসেন। তাদের দাবী রুহুল আমিনকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে।
অপরদিকে রুহুলামিনের চাচা সমছুল হক বলেন, একটি টিলা নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকে বিরোধ চলছিলো। সোমবার সকাল অনুমান ৭টার দিকে প্রতিবন্ধী রুহুল আমিন কাঁঠাল সংগ্রহ করতে গেলে প্রতিপক্ষের কয়েকজন মিলে দা দিয়ে কুপিয়ে তাঁকে হত্যা করে। এ সময় সমছুল হকের ছেলে ইমরান আহমদ রুহুল আমিনের চিৎকার শুনে টিলার উপরে উঠলে ইমরান আহমদকেও মারপিট করা হয়।
এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বেলা ৩ টায় হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতাল মর্গে প্রেরণের প্রস্তুতি নিচ্ছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে কানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ আছে। তাকে হত্যা করা হয়েছে এটা সঠিক কিন্তু কে বা কারা হত্যা করেছে তা এখনো বলা যাচ্ছে না।