ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়, পূর্ণিমার চাঁদ যেন ঝলসানো রুটি

ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়, পূর্ণিমার চাঁদ যেন ঝলসানো রুটি
ছবিঃ সংগৃহীত

সুনিপ দাশ সৌরভ,চকরিয়া,২০ এপ্রিল।।নিন্ম আয়ের মানুষের ব্যাংকে কোন  জমানো টাকা ও নাই কিংবা রাস্তায় আগের মত যাত্রী ও নাই,নাই মাসিক বেতন।অন্যদিকে করোনা ও নিয়ন্ত্রণহীন  দ্রব্যমূল্যে মধ্যে উভয় সংকটে পড়েছে।আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও রোদে দাঁড়িয়ে আমাদের  জন্য কাজ করে যাচ্ছে।আসলে কারো দুঃখ অনুভব করতে চাইলে সেই জায়গা নিজেকে চিন্তা করতে হয়। চাকরিজীবীদের বেতন যদি দুইমাস  বন্ধ হয় কি অবস্থা হয় শুধু মাত্র চাকরিজীবীরা বুঝে।দেশের মহামারিতে একে অপরের সহযোগিতায় ও মানবিকতায় এই দূর্যোগ আমাদের জয় করতে হবে।তাই একটু সুন্দর আচরণ হয়ত ক্ষুধার জ্বালা মিটবে না কিন্তু একটু মানসিক শান্তি পাব করোনায় বিপাকে পড়া মানুষগুলো।এমন অবস্থায় সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভা ৪ নং ওর্য়াডের জনপ্রিয় কাউন্সিলর প্রার্থী চকরিয়া উপজেলার জাতীয় হিন্দু  মহাজোটের সফল সাধারণ সস্পাদক সন্-জয়  কুমার  সুশীল(বিএসসি)।সোমবার(১৯ এপ্রিল)চকরিয়া পৌরশহর ৪ নং ওর্য়াডের ১২'শ কেটে খাওয়া সাধারণ মানুষেরমাঝে এান উপহার দেন।পৌরসভা ৪ নং ওর্য়াডের জনপ্রিয় কাউন্সিলর প্রার্থী ইতিমধ্যে যিনি ফাইল-কেবিনেট প্রতীক নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে চষে বেড়াচ্ছেন।তারুণ্যের প্রিয় মুখ বিশিষ্ট সমাজ-সেবক দানশীল ব্যক্তিত্ব সন্-জয় কুমার সুশীল বিএসসি।তিনি প্রয়াত বীরমুক্তিযোদ্ধা জীবন বাঁশি সুশীলের বড়ছেলে সন্-জয় কুমার সুশীল।তিনি বলেন করোনার দ্বিতীয় ঢেউ যেন সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সকল শ্রেনীর মানুষ বিপাকে।তাই আমি আমার ৪ নং ওর্য়াডের শ্রমজীবী পেশাজীবি পথচারী থেকে শুরু করে ১২'শ মানুষকে সহায়তা দিতে পেরে আমি ধন্য।