গাইবান্ধার ওসি মজিবর রহমানের বিরুদ্ধে আইজিপি বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন সাংবাদিক খালেদ

গাইবান্ধার ওসি মজিবর রহমানের বিরুদ্ধে আইজিপি বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন সাংবাদিক খালেদ
ছবিঃ সংগৃহীত

আবু তাহের, স্টাফ রিপোর্টার।। ১৯ মার্চ, শুক্রবার।। গাইবান্ধা সদর থানার ওসি তদন্ত মজিবর রহমানের বিরুদ্ধে  পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন বে-সরকারী টেলিভিশন চ্যানেল এশিয়ান টিভিরগাইবান্ধা  জেলা প্রতিনিধি, প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সাধারন সম্পাদক ও গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগ সদর উপজেলার সাংগঠনিক সম্পাদক মো. খালেদ হোসেন।

তার বিরুদ্ধে করা মিথ্যা মামলার প্রতিকার না পেয়ে শেষ পর্যন্ত তিনি এ অভিযোগ করেন।
বৃহস্পতিবার ডাক যোগে পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজিপি) বরাবর তিনি এই অভিযোগ পত্র প্রেরন করেন।
সাংবাদিক খালেদ হোসেনের অভিযোগ, কলেজ পাড়ার সাকোয়াত হোসেন শেলী গত ৭মার্চ রাতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আহত করেন তাকে। সেই রাতে খালেদ হোসেন  নিজে বাদী হয়ে সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে ৮ মার্চ মামলাটি রুজু করে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাফুজার রহমান।  কিন্তু তার ঠিক তিন দিন পর খালেদ হোসেনের উপর হামলাকারী ও তার করা মামলার ১নং আসামী সাকোয়াত হোসেন শেলী তাকে আসামী করে উল্টো মামলা করেন। ১০ মার্চ মামলাটি রুজু করেন ওসি ইনচার্জের দায়িত্বে থাকা ওসি তদন্ত মজিবর রহমান।

এদিকে, মামলা দুটির তদন্তভার দেয়া হয়েছে সদর থানার উপ-পরিদর্শক শফিউল ইসলামকে। বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন,গত ৭ মার্চ খালেদ হোসেনের করা মামরা ও ১০ মার্চ সাকোয়াত হোসেন শেলীর করা মামলা এই দুই মামলার নথিপত্র আমি হাতে পেয়েছেন। এর তদন্তকাজ শুরু করেছি এবং খুব শিগগিরই মামলা দুটির তদন্তকাজ শেষ করে প্রতিবেদন দেয়া হবে।
অন্যদিকে, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউর করিম রেজা ও সাধারন সম্পাদক আমিনুজ্জামান রিংকু সাংবাদিক খালেদ হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ এবং একইসাথে নিন্দ জানিয়েছেন। তারা বলেন, আমরা এর তিব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেইসাথে মিথ্যা মামলাটি গ্রহন করায় ওসি তদন্ত মজিবর রহমানের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি।