ছাত্রলীগ নেতা ফায়সাল হত্যার আসামী ধরতে এমপি কমলের পুরস্কার ঘোষণা

ছাত্রলীগ নেতা ফায়সাল হত্যার আসামী ধরতে এমপি কমলের পুরস্কার ঘোষণা
ছবি: সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন,  স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার।। মেধাবী ছাত্রলীগ নেতা ফায়সাল উদ্দিন হত্যাকান্ডে জড়িত আসামীদের ধরতে পারলে প্রতিজন আসামীর জন্য ৫০ হাজার টাকা করে পুরস্কার ঘোষণা করেছেন কক্সবাজার সদর- রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল।

সোমবার ৪ জুলাই বিকাল ৫ টায় কক্সবাজার সদরের খুরুস্কুল ইউনিয়ন পরিষদস্থ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ফায়সাল উদ্দিনে নামাজে জানাজা পূর্ব সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখতে গিয়ে সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল মাইকের মধ্যে এ ঘোষণা দেন।
এমপি কমল আরও বলেন,ফায়সালকে সন্ত্রাসীরা হামলা করার পর নিরাপদে চলে যাওয়া পর্যন্ত পুলিশ সেখানে অবস্থান করেছিল; কাকে খুশি করার জন্য? ফয়সালকে যারা খুন করেছে তাদেরও বেঁচে থাকার অধিকার নাই।
খুরুস্কুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার পৌরসভা মেয়র ও জেলা আওয়ামিলীগ সাধারণ সম্পাদক  মুজিবুর রহমান, কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক  মারুফ আদনান ও পরিবারের পক্ষ থেকে তার বড় ভাই আবুল হাশেম। বক্তারা বলেন, ফায়সাল উদ্দিন হত্যা কান্ডে জড়িত ও এদের পিছনে ইন্দনদাতা যারা আছে তাদেরও আইনের আওতায় আনতে হবে।
প্রশাসনের উপস্থিতিতে একজন ছাত্রলীগ নেতার উপর কিভাবে হামলার ঘটনা হলো,সেই ঘটনার ধিক্কার ও তীব্র প্রতিবাদ জানান বক্তারা। 
জানাজা নামাজের আগে নিহত ফায়সালের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী ও তার অনাগত সন্তানের জন্যও দোয়া কামনা করেন বক্তারা। 
সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমলের নেতৃত্বে দলীয় নেতা কর্মীরা নিহত ফায়সালের কফিনে ফুলদিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেন। এরপর অনুষ্ঠিত হয় নামাজে জানাজা।
জানাজায় হাজার হাজার শোকার্ত মানুষ অংশ নেন।
জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্থানেই ফায়সাল উদ্দিনকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।
এদিকে, ঘাতকদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে জানাজা পরবর্তী বিক্ষোভ মিছিল করেছে কক্সবাজার জেলা ও সদর ছাত্রলীগ। 
এরআগে, ফায়সার হত্যা কান্ডের মুল পরিকল্পনাকারী আজিজ সিকদারকে লিংক রোড এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। 
এদিকে, রবিবার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড কমিটির সম্মেলন চলাকালে ফায়সাল জীবনহানির আশংকায় পুলিশের কাছে নিরাপত্তার আবেদন করেও ব্যর্থ হন। পরে সন্ধ্যায় সিএনজি যোগে বাড়ী ফেরার পথে কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের উপস্থিতেই কুপিয়ে হত্যা করা হয় কক্সবাজার সদর উপজেলা ছাত্র লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফায়সাল উদ্দিনকে।
নিজেদের ব্যর্থতা খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা পুলিশ।