জীবিত ভেসে আসা ডলফিন, সৈকতেই মারা গেল

জীবিত ভেসে আসা ডলফিন, সৈকতেই মারা গেল
ছবি: সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার, ২৩ আগষ্ট।। কক্সবাজার উখিয়া পাটুয়ার টেক বাইল্যাখালী সৈকতে মঙ্গলবার বার ২৩ আগষ্ট দুপুর ১২ টার সময় ভেসে এসেছিল অপ্রাপ্ত বয়স্ক একটি ডলফিন।কিন্তু বিকালে সৈকতেই মারা গেছে ডলফিনটি।

কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগ, বীচ কর্মী ও সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউটের লোকজন মৃত ডলফিনটি উদ্ধার করেছে। 
স্থানীয়দের সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে পাটুয়ার টেক বাইল্যাখালী সৈকতে জীবিত একটি ডলফিন ভেসে আসে। মাছ ধরতে যাওয়া স্থানীয় বেলাল নামের একজন জেলে বিষয়টও জেলা প্রশাসনের বীচ কর্মী ও বনবিভাগকে জানান। 

পরে বনবিভাগ ও বীচ কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেন। সেখানে উদ্ধার করা ডলফিনটি পানিতে ভাসিয়ে বাচানোর চেস্টা করেন। এমন কি ডলফিনটিকে কয়েক বার সমুদ্রের দিকে ফেরত পাঠালেও বার বার কুলে ফিরে আসে।
ডলফিনকে সাগরে ফেরানো ও বাঁচানোর সব চেস্টা ব্যর্থ করে মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়ে ডলফিন।
বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. শরীফ ঘটনাস্থলে এসে ডলফিনকে মৃত ঘোষণা করেন। 
সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. শরীফ জানান, মৃত ডলফিনের ওজন সাড়ে ২৮ কেজি এবং লম্বা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি। ডলফিনটির শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. সারওয়ার আলম জানান, মঙ্গলবার  বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে নৃত ডলফিলটি বনবিভাগ ও বীচ কর্মীরা উদ্ধার করে সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউট ল্যাবে আনা হয়েছে। 
তিনি জানান, সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউ ল্যাবেই ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু বন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ভেটেরিনারি সার্জন ও সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা যৌথ ভাবে ময়না তদন্ত করা হচ্ছে। ময়না তদন্তের পর ডলফিনের মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।
.