জুলফিকার আলী ভুট্টো ২১ তম মৃত্যু বার্ষিকীতে ভুট্টো পরিবারের পক্ষ থেকে সজীব মোল্লার  গভীর শ্রদ্ধা! 

জুলফিকার আলী ভুট্টো ২১ তম মৃত্যু বার্ষিকীতে ভুট্টো পরিবারের পক্ষ থেকে সজীব মোল্লার  গভীর শ্রদ্ধা! 
ছবিঃ সংগৃহীত

মানিক হাওলাদার।। স্টাফ রিপোর্টার।।২৮ মে, শুক্রবার৷। আধুনিক ঝালকাঠী গড়ার রুপকার,নলছিটি বাসির হৃদয়ের স্পন্দন,সাবেক সফল সাংসদ সদস্য,দক্ষিণ জনপদের উন্নয়নের রুপকার, ছাত্রনেতা থেকে  মহান জননেতা মরহুম আলহাজ্ব জুলফিকার আলী ভূট্টো মহোদয়ের ২১ তম মৃত্যু বার্ষিকীতে  'ভূট্টো পরিবারের' পক্ষ থেকে ভুট্টো সাহেবের ভাতিজা ছাত্রনেতা এম. আনিসুর রহমান (সজীব মোল্লার)  গভীর  শ্রদ্ধা এবং সেই সাথে তিনি ভুট্টো সাহেবের সংক্ষিপ্ত জীবনী তুলে ধরেছেন!

মরহুম আলহাজ্ব জুলফিকার আলী ভূট্টো (জন্ম-১৯৫৪-মৃত্যু  ২০০০ইং ) জুলফিকার আলী ভূট্টো ১৯৫৪ সালের ১ জুলাই ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার তৎকালীন সুবিদপুর ইউনিয়নের (বর্তমান মোল্লারহাট ইউনিয়ন) কাটাখালী গ্রামে সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের মোল্লা বংশে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতার নাম আলহাজ্ব আব্দুল মালেক মোল্লা এবং মাতার নাম মোসাঃ রাহিলা বেগম। তিনি ৭ ভাই বোনের মধ্য চতুর্থ। ছোট বেলা থেকেই বাবা-মা সহ সবাই আদর করে ভূট্টো বলে ডাকতেন।

১৯৭০সালে সুবিদপুর বিজি ইউনিয়ন একাডেমী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি. ঢাকা কবি নজরুল সরকারী কলেজ থেকে এইচ.এস.সি ও স্নাতক পাশ করেন। ওই কলেজে পড়াশুনা অবস্থায় ছাত্র রাজনিতিতে যোগ দেন তিনি। পরে ১৯৭২ সনে ওই কলেজের ভিপি নির্বাচিত হন। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডাবল এম এ পাশ করেন। সেখানেও মিজান গ্রুপ থেকে  ভিপি নির্বাচিত হয়েছিলেন ভূট্টো।

ছাত্র রাজনীতিতে তৎকালীন ১০ দলীয় নেৃত্বত্ত্বাধীন হরতালের ডাক দেওয়ায় তিনি সহ ৩৬ জন ছাত্র পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন।

ভুট্টোর  সক্রিয় রাজনীতি ও তার জনপ্রিয়তা দেখে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ তাকে খবর দিয়ে জাতীয় পার্টির নমিনেশন দিয়ে তার নিজ নির্বাচনী এলাকা ঝালকাঠি-২ (ঝালকাঠি-নলছিটি) পাঠিয়ে দেন।

প্রথমে তিনি ১৯৮৫ সালে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পরে ১৯৮৬ সনে জনগনের বিপুল ভোটে (ঝালকাঠি-নলছিটি)-২ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৮৭ সালে জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসাবে নিযুক্ত হন। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থেকে ৩ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন এই নেতা। 

তার মৃত্যুর পর তার স্ত্রী ইসরাত সুলতানা ইলেন ভূট্টো ও তার জনপ্রিয়তায় বিএনপি থেকে একই আসন থেকেই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

জুলফিকার আলী ভূট্টো  নির্বাচিত হয়ে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। কালের সাক্ষী হিসাবে রেখে গেছেন শুধু  স্মৃতি তার নামে প্রতিষ্ঠিত অসংক্ষ স্কুল,কলেজ,ও মাদ্রাসা গুলো। ২০০০ সনের ২৯শে মে ঢাকায় জাতীয়  হৃদরোগ ইনিস্টিটিউট মেডিকেলে  এই মহান নেতা হৃদরোগে  আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরন করেছেন। তার গ্রামের বাড়ি নলছিটি উপজেলার মোল্লারহাট বাজারের কলেজ সংগগ্নে এই জনপ্রিয় নেতাকে সমাধি করা হয়েছে।