জয়পুরহাটে নকল স্বর্ণের মুদ্রাসহ গ্রেফতার ২ প্রতারক

জয়পুরহাটে নকল স্বর্ণের মুদ্রাসহ  গ্রেফতার ২ প্রতারক
ছবিঃ সংগৃহীত

প্রতারণার মাধ্যমে নকল স্বর্ণের মুদ্রা বিক্রির অভিযোগে আক্কেলপুরের ইসমাইলপুর বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টায় সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের ২ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) জয়পুরহাট ক্যাম্পের সদস্যরা।  
র‌্যাব-৫, জয়পুরহাট  ক্যাম্পের  কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ মোস্তফা জামান  জানান, আটক প্রতারক চক্রের দুই সদস্য হচ্ছেন সদর উপজেলার কুড়িমাধবপাড়া এলাকার আব্দুর রশিদের ছেলে  মিলন হোসেন (৩২) ও ক্ষেতলাল উপজেলার মহব্বতপুর গ্রামের ফজলুল বারির ছেলে আব্দুল বারি (৫০)।

 প্রতারণার শিকার জহুরুল ইসলামের অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব ওই অভিযান চালায় এবং তাদের গ্রেফতার করে।  জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার জামালগঞ্জ বাজারে চায়ের দোকানে জহুরুল ইসলামের  সাথে পরিচয় হয় ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরবর্তীতে  এক আতœীয় পুকুর খনন করতে গিয়ে পাওয়া একটি স্বর্ণের মুদ্রা  অল্প দামে বিক্রির প্রস্তাব দিয়ে জহুরুল ইসলামের নিকট থেকে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে স্বর্ণকারের দোকানে মুদ্রাটি পরীক্ষা করালে জানা যায় এখানে স্বর্ণের কোন অস্তিত্ব নাই। এ অবস্থায়  টাকা ফেরত চাইলে কালক্ষেপণ করতে থাকে। সর্বশেষ মঙ্গলবার দুপুরে  মুদ্রাটি ফেরত দিয়ে জহুরুল ইসলাম তার দেওয়া ৩ লাখ ৫০ হাজার  টাকা ফেরত চাইলে আসামীরা বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ মেরে ফেলার হুমকি দিলে জহুরুল ইসলাম জীবন রক্ষার্থে সেখান থেকে পালিয়ে আসে।

ভুক্তভোগী জহুরুল বিষয়টি জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পে অভিযোগ দায়ের করলে নিজস্ব গোয়েন্দা অনুসন্ধানে সত্যতা পেয়ে আক্কেলপুরের ইসমাইলপুর বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে নকল স্বর্ণের মুদ্রা বিক্রির সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার নকল মুদ্রাটি উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মিলন ও আব্দুল বারি র‌্যাবকে জানায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের মূলহোতা ও সদস্য। দেশের বিভিন্ন এলাকার লোকজনকে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে সোনালী রংয়ের স্বর্ণের মুদ্রা বলে বিশ্বাস করিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে  লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিতো। তাদের বিরুদ্ধে  আক্কেলপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানায় র‌্যাব।