ঝালকাঠিতে ইকোপার্ক রক্ষায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন

ঝালকাঠিতে ইকোপার্ক রক্ষায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন
ছবি: সংগৃহীত

আজমীর হোসেন তালুকদার, ঝালকাঠি ॥ ঝালকাঠির সুগন্ধা, বিষখালি ও ধানসিঁড়ি এই তিন নদীর মোহনায় প্রস্তাবিত ইকোপার্ক রক্ষায় মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে ইকোপার্ক রক্ষা এবং খাল-নদী ও পরিবেশ বাচাঁও আন্দোলন কমিটি। সোমবার (২৫ জুলাই) সকাল ১০ টায় ঝালকাঠি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে কোর্ট রোডে ঘন্টাব্যাপি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, আইনজীবি, সাংবাদিক ও বেশ কয়েকটি সামাজিক সংগঠনের কর্মীরা মানববন্ধনে বিভিন্ন প্লেকার্ড ও ফেস্টুন নিয়ে মানববন্ধন অংশ নেন। 

   মানববন্ধনে ধানসিড়ি ইকোপার্ক রক্ষা এবং খাল-নদী ও পরিবেশ বাচাও আন্দোলন কমিটির আহবায়ক এনজিও ব্যক্তিত্ব ফরহাদ হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সদস্য সচিব সদর উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান মঈন তালুকদার, যুগ্মআহবায়ক ও জেলা জাতীয়পার্টির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. আনোয়ার হোসেন আনু, মুহাঃ আল-আমিন বাকলাই, কমিউনিষ্ট পাট্রির সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত দাস হরি, এডভোকেট সাকিনা আলম লিজা, হাসান মাহমুদ, আল আমীন বাকলাই।

    যুগ্মআহবায়ক এড. সাংবাদিক আককাস সিকদারের সঞ্চালনায়  আরো বক্তব্য রাখেন কমিটির সদস্য ধানসিড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ মাসুম, কেওড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ খান,সোয়েবুর মোর্শেদ সোহেল, সাংবাদিক দুলাল সাহা, জেলা কমিউনিষ্ট পাট্টির সভাপতি, এসএম হুমায়ুন কবীর, খসরু নোমান, জেলা জাসদ ইনু সভাপতি সুকুমার ওঝা দোলন, এড. মিজানুর রহমান মুবিন, কবিতা হালদার প্রমুখ। 
 
 “ইকোপার্কের মামলায় সরকার পক্ষ নোটিশ পাওয়া সত্বেও আদালতে অনুপস্থিত থেকে স্বেচ্ছায় হেরে যাওয়ায় এখন পার্কটি ভুমি খেকোদের পেটে চলে যাবার উপক্রম হয়েছে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর জেলা প্রশাসক ও সরকার পক্ষের আইনজীবীরা ডিক্রি বাতিলে উচ্চ আদালতে না গিয়ে রহস্যজনক ভাবে কালক্ষেপন করছে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন। মানববন্ধন থেকে অবিলম্বে ইকোপার্ক রক্ষায় সরকার পক্ষকে আপিল করার আহবান জানায়। অন্যথায় আরো কঠোর কর্মসুচী দেয়া হবে বলে জানানো হয়।”