ঝালকাঠিতে টিআইবির প্রকল্প অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত

ঝালকাঠিতে টিআইবির প্রকল্প অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত
ছবি: সংগৃহীত

ঝালকাঠি প্রতিনিধি।। ঝালকাঠিতে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) প্রকল্প অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (১৫ জুন) সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সুগদ্ধা সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয় উক্ত সভা। টিআইবি’র সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), ঝালকাঠির আয়োজনে এবং সনাক সভাপতি ড. কামরুন্নেছা আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জোহর আলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঝালকাঠি জেলা পরিষদের প্রশাসক সরদার মোঃ শাহ আলম।

সনাক সদস্য রাবেয়া কবীর এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) ঝালকাঠি এর প্রাক্তন সভাপতি প্রফেসর মোঃ লাল মিয়া। টিআইবি’র সিভিক এনগেজমেন্ট বিভাগের ক্লাস্টার কোঅর্ডিনেটর মোঃ ফিরোজ উদ্দিন মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে পার্টিসিপেটরি অ্যাকশন অ্যাগেনইস্ট করাপশন; টুওয়ার্ডস ট্রান্সপারেন্সি অ্যান্ড অ্যাকাউন্টেবিলিটি (প্যাকটা) প্রকল্প তুলে ধরেন। প্যাকটা প্রকল্পের লক্ষ্য, উদ্দেশ্য, কার্যক্রম, আওতাভুক্ত খাতসমূহ, প্রকল্পের অংশীজন, বাজেট ও বাস্তবায়ন পদ্ধতি সর্ম্পকে বিস্তারিত বিষয় উপস্থাপন করেন তিনি। সনাকের সক্রিয় ভূমিকার মাধ্যমে তথ্য-প্রযুক্তি ও প্রমান নির্ভর অ্যাডভোকেসির দ্বারা দুর্নীতি প্রতিরোধে প্যাকটা প্রকল্প কাজ করবে বলে উল্লেখ করেন তিনি। উপস্থাপন শেষে বিষয়বস্তুর উপর প্রশ্নত্তোর পর্বে অংশগ্রহণকারীগনের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন মোঃ ফিরোজ উদ্দিন।

সভায় জেলা পরিষদের প্রশাসক সরদার মোঃ শাহ আলম বলেন, ‘দুর্নীতি সম্পর্কে আমরা সবাই জানি কিন্তু যাদের জানার কথা বা মানার কথা তারা তা করেনা। ঝালকাঠিতে টিআইবির কার্যক্রম সর্ম্পকে আমি পূর্ব থেকেই অবগত। টিআইবির সনাক সদস্যগণ দুর্নীতির বিরুদ্ধে যেমনিভাবে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে, তেমনিভাবে সরকারের বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

টিআইবির প্যাকটা প্রকল্পের সফলতা প্রত্যাশা করে সভায় জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী বলেন, ‘বিশে^র প্রতিটি দেশেই কম-বেশি দুর্নীতি রয়েছে। ৯০ ভাগ লোক মনে করে দুর্নীতি হচ্ছে অবৈধভাবে টাকা লেনদেন বা ঘুষ। কিন্তু সকলের জানা দরকার, দুর্নীতি হচ্ছে বহুমাত্রিক, দায়িত্বে অবহেলা করাও দুর্নীতি। ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রেই দুর্নীতি হয়। তবে এর ব্যাপকতা কমিয়ে আনতে হবে। টিআইবি বিভিন্ন কার্যক্রমের দ্বারা সরকার ও প্রশাসনকে দুর্নীতি প্রতিরোধে সহযোগিতা করে যাচ্ছে। দুর্নীতি প্রতিরোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকেও যেকোনো ধরণের পরামর্শ বা সুপারিশের ভিত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হবে।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট লতিফা জান্নাতি, সিনিয়র এএসপি মোঃ মাসুদ রানা, ডাঃ মোঃ আবু আল হাসান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা খন্দকার আমিনুল ইসলাম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ রাকিব হোসেন প্রমুখ।

সভায় স্থানীয় প্রশাসন, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক, ব্যবসায়ী, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধি, সনাক সদস্যবৃন্দ, ইয়েস গ্রুপের সদস্যবৃন্দ এবং টিআইবির কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।