সাধারণ জনগণের 'ভাইজান' খান সাইফুল্লাহ পনিরের মনোনয়নে এলাকাবাসীর মিষ্টি বিতরণ 

সাধারণ জনগণের 'ভাইজান' খান সাইফুল্লাহ পনিরের মনোনয়নে এলাকাবাসীর মিষ্টি বিতরণ 
ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝালকাঠি।। ঝালকাঠি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন লাভ করেছেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এড. আলহাজ্ব খান সাইফুল্লাহ পনির। বাংলাদেশ আ্ওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয়  মনোনয়ন  বোর্ডের সভায় এ সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত হয়। এই খুশিতে জেলার বিভিন্ন স্থানে সাধারণ জনগনকে মিষ্টি বিতরণ করতে দেখা যায়। 

শনিবার সন্ধ্যায় জেলা চেয়ারম্যান পদে খান সাইফুল্লাহ পনিরের দলীয় মনোনয়ন লাভ করায় দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াও সর্বস্তরের মানুষের মাঝে এ সংবাদ পৌছালে আনন্দ ও উচ্ছাস ছড়িয়ে পরে। আওয়ামীলীগ সহ সাধারণ মানুষ ঝালকাঠির অভিভাবক আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু এমপিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

স্থানীয় জনসাধারণের ভাইজান খ্যাত খান সাইফুল্লাহ পনির জনগনের নেতা, সার্বজনীন জনসাধারণের নেতা এমনভাবেই অভিব্যক্তি ব্যক্ত করেন ঝালকাঠির সর্বসাধারণ। দলমত নির্বিশেষে তাঁর গ্রহনযোগ্যতা এবং জনপ্রিয়তায় রয়েছেন শীর্ষে। 

তারই প্রতিফলন দেখা যায় আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন লাভ করার সাধারণ জনগনের মাঝে লক্ষ্য করা যায় বাধ ভাংগা উল্লাস। খুশিতে মিষ্টি বিতরণ করতে দেখা যায় ঝালকাঠির বিভিন্ন স্থানে। 

ঝালকাঠি জেলা প্রেসক্লাব, ষ্টেশন রোড, স্টেডিয়াম ও সদর রোড সহ জেলার আরো বিভিন্ন স্থানে সাধারণ জনগনের মিষ্টি মুখ করানোর দৃশ্য এই প্রথম। এর আগে জেলা ব্যাপি নির্বাচন ঘিরে এত আনন্দ আর পরিলক্ষিত হয়নি। 

    খান সাইফুল্লাহ পনির বর্তমানে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে জেলা জুড়ে সংগঠনকে শক্তিশালী অবস্থানে নেয়া ও ব্যক্তিগত নিরপেক্ষ ইমেজের মাধ্যমে একক জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বে পরিনত হন।  

 দলীয় সূত্র জানিয়েছে, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে এড. পনির সহ দলীয় ৬ নেতা প্রার্থী হিসাবে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। তবে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র, ঝালকাঠি-২ আসনের সংসদ সদস্য ও রাজনৈতিক অভিভাবক আমির হোসেন আমু জেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে এড. খান সাইফুল্লাহ পনিরকে সমর্থন দেন।

   এ ব্যাপারে দলীয় মনোনয়ন লাভের পর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এড. আলহাজ্ব খান সাইফুল্লাহ পনির তার প্রতিক্রিয়ায় দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার রাজনৈতিক অভিভাবক আমির হোসেন আমু এমপির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি জেলার সকল দলীয় নেতাকর্মী ও সর্বস্তরের ঝালকাঠিবাসীকে তার পক্ষ থেকে প্রানঢালা শুভেচ্ছা জানান।