ঝালকাঠির কিফাইনতনগর থেকে ১৩ জুয়ারী গ্রেপ্তার

ঝালকাঠির কিফাইনতনগর থেকে ১৩ জুয়ারী গ্রেপ্তার
ছবি: সংগৃহীত

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠি শহরের কিফাইনতনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ জুয়ারী দলের ১৩সদস্যকে আটক করেছে থানার টহল পুলিশ। শুক্রবার (৮জুলাই) দিবাগত রাত সোয়া ১টায় ৭নং কিফাইতনগর এলাকার ডাইলভাঙ্গা বাড়ীর

সম্মুখে একটি ক্লাব ভবনে অর্থের বিনিময়ে জুয়া খেলার সময় তাদের আটক করা হয়েছে। 

   আটকের সময় তাদের কাছ থেকে জুয়া খেলার উপকরন, জুয়ার বোর্ড থেকে নগদ ২৯ হাজার ৯শ ৯২টাকা ও খেলার হিসাবের খাতাসহ অন্যান্য মালামাল পুলিশ জব্দ করেছে বলে এসআই সুশংকর মল্লিকের দায়েরকৃত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

     এসআই সুশংকর মল্লিকের লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, মোবাইল-১ রাত্রীকালীন দায়িত্ব পালন কালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কিফাইতনগর এলাকার
ডাইলভাঙ্গা বাড়ীর সম্মুখে একটি ক্লাব ভবনে সংঘবদ্ধ জুয়ার আসর চলার সংবাদ পান। 

     বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষ কে জানালে পুলিশ পরিদর্শক মো: আব্দুল মালেকের নেতৃত্বে মোবাইল-২ এর অফিসার-ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌছে ক্লাব ভবনের মধ্য থেকে জুয়ারী দলকে আটক ও নগদ টাকাসহ জুয়া খেলার উপকরন সমূহ জব্দ করেন।

        আটককৃতরা হচ্ছে মৃ. ইউসুফ আলী হাওলাদারের পুত্র উজ্জল হাওলাদার (৩৫), মৃ. ধীরেন্দ্র নাথের পুত্র পলাশ মজুমদার (৫১), মজিবুল মাঝির পুত্র সোহাগ মাঝি
(৩২), খালেক হাংয়ের পুত্র রনি হাং (৩১). কাজী জামালের পুত্র কাজী ফাহাদ (২৬), জেহাদ ব্যাপারীর পুত্র মিলন ব্যাপারী (২৯), রশিদ খানের পুত্র হানিফ খান (৫১), নজরুল ইসলামের পুত্র ফরিদ (৩০), আঃ মন্নানের পুত্র খোকন (৩৪), বেল্লাল হাংয়ের পুত্র সুমন হাং (৩৭), হাচেন আলীর পুত্র আনিচুর (৩৫), ফজলুল হকের পুত্র রিয়াজ মৃধা (৩০) ও ফজলুল হক ফরাজীর পুত্র আলমগীর ফরাজী (৪০)।

    রাতেই ঝালকাঠি থানায় এসআই সুশংকর মল্লিক বাদী হয়ে আটককৃত ১৩জনকে আসামী করে ১৮৬৭সালের বঙ্গীয় জুয়া আইনের দ:বি: ৩/৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করে। উক্ত মামলায় শনিবার (৯জুলাই) গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে সোপর্দ করলে জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানাগেছে।