টেকনাফে ডিএনসির বিশেষ অভিযানে ৪৩ হাজার পিস উদ্ধার : আটক-২

টেকনাফে ডিএনসির বিশেষ অভিযানে ৪৩ হাজার পিস উদ্ধার : আটক-২
ছবি: সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার।। কক্সবাজারের টেকনাফ বাহারছড়ায় এক বসতঘরে সহ পৃথক অভিযান চালিয়ে ৪৩ হাজার পিস ইয়াবাসহ দুই পাচারকারীকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফ বিশেষ জোনের  সদস্যরা। মঙ্গলবার রাতে বাহারছড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড নোয়াখালীপাড়া বাঘঘোনা ও দিনে পৌরসভার আলো শপিং কমপ্লেক্সস্থ সাউথইস্ট ব্যাংক এটিএম বুদ্ধের পশ্চিম পাশে রাস্তার উপর এ অভিযান চালানো হয়। 

আটকরা হলেন-বাহারছড়া ইউনিয়নের ০৯নং ওয়ার্ড নোয়াখালী পাড়া, বাঘঘোনা এলাকার মৃত হাছন আলীর ছেলে মোঃ নূরুল আলম (৩৮) ও টেকনাফ পৌরসভা ৫নং ওয়ার্ড অলিয়াবাদ এলাকার মো: হোছনের ছেলে 
নুরুল আবছার (৩৪)। 

মঙ্গলবার দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফ বিশেষ জোনের সহকারী পরিচালক সিরাজুল মোস্তফা।  
তিনি জানান, ২৩ মে রাত ১০ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর একটি টীম  বাহারছড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের নোয়াখালীপাড়া বাঘঘোনা এলাকাস্থ আব্দুল মালেক এর নিজ দখলীয় ৫ কক্ষ বিশিষ্ট বসতঘরে অভিযান চালানো হয়। এসময় আব্দুল মালেক শয়নকক্ষে রক্ষিত স্টীলের আলমিরার ড্রয়ার হতে ২৫ হাজার পিস অ্যামফিটামিনযুক্ত ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৭৫ লাখ টাকা। এঘটনায় জহির আহমদের ছেলে আব্দুল মালেক (৩১) পলাতক আসামী করে টেকনাফ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

এদিকে, এরআগে একই দিন বিকাল ৫ টার দিকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফ বিশেষ জোনের বিভাগীয় সহকারী পরিচালক মোঃ সিরাজুল মোস্তফার নেতৃত্বে বিভাগীয় উপ-পরিদর্শক একেএম আজাদ উদ্দিন, তুন্তুমনি চাকমাসহ একটি টীম 
টেকনাফ পৌরসভার আলো শপিং কমপ্লেক্সস্থ সাউথইস্ট ব্যাংক এটিএম বুদ্ধের পশ্চিম পাশে রাস্তার উপর অভিযান চালায়। এসময় ১৮ হাজার পিস অ্যামফিটামিনযুক্ত ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক করা হয় মোঃ নূরুল আলম ও
নুরুল আবছারকে। আটক ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ৫৪ লাখ টাকা। এ ঘটনায় আটকদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে ।