ঠাকুরগাঁওয়ে ব্যারিস্টার সুমনের খেলা দেখতে না পেরে আত্মহত্যার চেষ্টা

ঠাকুরগাঁওয়ে ব্যারিস্টার সুমনের খেলা দেখতে না পেরে আত্মহত্যার চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার লোকমান (১২) ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের ফুটবল খেলা দেখতে যেতে না পেরে পরিবারের সাথে অভিমান করে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বর্তমানে ওই কিশোর বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। সেই কিশোরকে হাসপাতালে দেখতে যান ব্যারিস্টার সুমন। এসময় লোকমানের খেলাধুলা ও পড়াশোনার যাবতীয় খরচের দায়িত্ব নেন ব্যারিস্টার সুমন।

গত রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) রাত ১১টায় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওই কিশোরকে দেখতে যান ব্যারিস্টার সুমন। এসময় তিনি কিশোরের দাদির হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা তুলে দেন এবং কিশোরের পড়াশোনার সকল দায়িত্ব বহনের কথা জানান।

এর আগে ওই দিন বিকেলে জেলার রানীশংকৈল ডিগ্রি কলেজ মাঠে মুখোমুখি হয় ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি ও রানীশংকৈলের সোহেল রানা ফুটবল একাডেমি। সেই খেলা দেখতে যেতে দুই’শ টাকা চেয়েছিল লোকমান তার পরিবারের কাছে। খেলা দেখতে যেতে তাকে পরিবারের কেউ টাকা না দেওয়ায় অভিমানে সন্ধ্যায় লোকমান বিষপান করলে পরিবারের সদস্যরা তাকে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

লোকমান উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের রত্নাই বারসা গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার সঞ্জিব কুমার রায় জানান, বর্তমানে লোকমানের শারীরিক অবস্থা ভালো আছে।’

ব্যারিস্টার সুমন সাংবাদিকদের জানান, ‘লোকমানের চিকিৎসার জন্য বর্তমানে আমরা ১০ হাজার টাকা তার পরিবারকে দিয়েছি ও পরবর্তীতে তার পড়াশোনার জন্য ও খেলাধুলার খরচ আমাদের একাডেমি বহন করবে।,

এ ঘটনায় দু:খ প্রকাশ করে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘আসলে এই বয়সে ছেলে মেয়ে গুলো একটু অভিমানী হয়। তবুও এ বিষয়টিতে আমার খুব খারাপ লেগেছে। এটা তার পরিবারেরও দোষ না। কারণ তার পরিবার খুব দরিদ্র তাই টাকা দিতে পারেনি। আমরা যদি সুস্থ ধারার কাজ করে সমাজটাকে গড়তে পারি ও ভালো কাজ করি তাহলে অবশ্যই মানুষের সারা পাওয়া যাবে।