ধর্মকে ব্যবহার করে নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীরা কখনো সফল হবে না- তথ্যমন্ত্রী

ধর্মকে ব্যবহার করে নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীরা কখনো সফল হবে না- তথ্যমন্ত্রী
ছবিঃ সংগৃহীত
এম. মতিন, চট্টগ্রাম।। ০২ এপ্রিল, শুক্রবার।। দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে ধর্মের নামে দেশে বিএনপি- জামায়াতসহ একটি মহল গন্ডগোল লাগিয়ে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে দেশকে পিছিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তারা ইসলামের নামে নৈরাজ্য করে মানুষের ঘরবাড়ি ও গাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে। বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ কিছু দপ্তরে হামলা চালিয়েছে। তারা হাটহাজারী ভূমি অফিসে অগ্নি হামলা চালিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র পুড়িয়ে দিয়েছে। ফায়ার সার্ভিসে হামলা করে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। এই বিষয়গুলো কখনো ইসলাম সমর্থন করে না। দেশবাসীকে এদের বিরুদ্ধে সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে’ বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। 
আজ শুক্রবার (২ এপ্রিল) দুপুরে তথ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকা রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত মন্ত্রীর ঐচ্ছিক তহবিল হতে অনুদান প্রদান, উপজেলা পরিষদ থেকে প্রতিবন্ধী ব্যাক্তিদের মাঝে হুইল চেয়ার ও মৎস চাষ প্রযুক্তি সম্প্রসারণ প্রকল্পের আওতায় স্থানীয় মৎস প্রতিনিধিদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'মাওলানা আহমদ শফী সাহেব হেফাজত ইসলামের আমির ছিলেন। তিনি আমাদের রাঙ্গুনিয়া মানুষ। তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ এবং মামলা করা হয়েছে যে শফি সাহেবকে অপদস্ত ও নির্যাতন করার কারণে তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। যারা মাওলানা আহমদ শফীর মত একজন বয়স্ক ব্যক্তি কে নির্যাতন করে হত্যা করার মত কাজ করতে পারে, তাদের হাতে তো কোন কিছুই নিরাপদ নয়।'
তিনি আরও বলেন, 'যারা যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর চেষ্টা করেছে, যারা স্বাধীনতাবিরোধী, এই বিএনপি- জামাতচক্র এখনো দেশের বিরূদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তাদের সহযোগিতায় সুযোগ সন্ধানের অপেক্ষায় তারা থাকা একটি মহল ইসলামের নামে গন্ডগোল সৃষ্টি করে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চাই। যারা বিএনপি-জামাতের সহযোগিতায় দেশের উন্নয়নের ধারাকে রুখে দিতে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে এবং সরকারের উন্নয়নের ধারাকে থামিয়ে দিতে যেই অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। দেশের সাধারণ জনগণ তা বুঝে। জনগণই এসব নৈরাজ্য প্রতিহত করবে। সুতরাং ধর্মকে ব্যবহার করে যারা ব্যক্তিগত দলের স্বার্থ হাসিল করতে চায়, তাদের এই সমস্ত অপচেষ্টা কখনোই সফল হবে না কারণ দেশের মানুষ সবকিছু জানে এবং বুঝে।'
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বজন কুমার তালুকদারের সঞ্চালনায় , ভাইস চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট আয়শা আকতার, রাঙ্গুনিয়া- রাউজান সার্কেল অফিসার আনোয়ার ইসলাম শামীম, রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি মাহাবুব মিলকী, যুবলীগের সভাপতি মোঃ শামসুদ্দোহা সিকদার আরজু, আবু তাহের প্রমুখ। 
পরে মন্ত্রী প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার এবং নগদ অনুদানসহ বাইসাইকেল বিতরণ করেন।