নরসিংদীতে ছাত্রীর সাথে পরকীয়ায় শিক্ষকের আত্মহত্যা -ছাত্রী গ্রেফতার

নরসিংদীতে ছাত্রীর সাথে পরকীয়ায় শিক্ষকের আত্মহত্যা -ছাত্রী গ্রেফতার

ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে নরসিংদী মডেল কলেজের এক শিক্ষক আত্মহত্যা করেছেন। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) নরসিংদীর হাজিপুরে রাত ৯টার দিকে তার নিজ ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে ঘটনাস্থল থেকে একই কলেজের ২য় বর্ষের এক ছাত্রীকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে রাত ১২টায় ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। 

ওই শিক্ষকের নাম আব্দুল্লাহ আলী। তিনি নরসিংদী মডেল কলেজের রসায়ন বিভাগের প্রভাষক ও হাজিপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা। তার চার বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

আত্মহত্যার প্রায় ১৪ ঘণ্টা আগে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক ওয়ালে “আই এম ডেস্ট্রয়িং মাইসেল্ফ” লিখে একটি পোস্টও করেন তিনি।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সে কয়েক মাস আগে নরসিংদী মডেল কলেজের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থীর সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। ওই মেয়ে বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয় এবং মেয়েটি দ্রুত শিক্ষকের বাসায় চলে আসে। পরে সে এবং কয়েকজন মেয়ে মিলে দরজা ধাক্কাধাক্কি করে খুলতে না পেরে দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে শিক্ষককে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

ঘটনার সময় তার স্ত্রী বাসায় ছিল না। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন এবং তদন্তের মাধ্যমে যথাযথ বিচার দাবি করেন।

নরসিংদী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুকদার বলেন, ঘটনাস্থল থেকে একজন ছাত্রীকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। জিজ্ঞাসার পর তাকে গ্রেফতার দেখানো হবে কিনা সিদ্ধান্ত নিবো।

তিনি আরও বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের পর সঠিক ঘটনা জানা যাবে। আমাদের তদন্ত চলমান রয়েছে। 

মডেল কলেজের অধ্যক্ষ কামরুল ইসলাম বলেন, আমরা পরকীয়ার বিষয়টি জানি না। আটকের কথা শুনেছি। আমাদের মিটিং আহ্বান করার প্রস্তুতি চলছে।