নালিতাবাড়ীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ১৫ ড্রেজার মেশিন নিলামে দিয়েছে ভ্রাম‍্যমান আদালত

নালিতাবাড়ীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ১৫ ড্রেজার মেশিন নিলামে দিয়েছে ভ্রাম‍্যমান আদালত
ছবিঃ সংগৃহীত

রাকিবুল আউয়াল পাপুল।। শেরপুর।। ০৭ এপ্রিল, বুুধবার।। শেরপুরের নালিতাবাড়ীর ভোগাই নদীর তীর ভেঙ্গে সমতল ভূমি খুঁড়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৩টি শ্যালুচালিত ড্রেজার মেশিন অকার্যকর ও ১৫টি শ্যালুচালিত ড্রেজার নিলামে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার ৬ এপ্রিল দুপুরে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হেলেনা পারভিন এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সঞ্চিতা বিশ্বাস এ অভিযান পরিচালনা করেন।

সুত্রে জানা যায়, প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পাহাড়ি নদী ভোগাইয়ের তীরবর্তী সমতল ভূমি এবং নদীরক্ষা বাঁধ ও তীর খনন করে ভূ-গর্ভস্থ বালু অবৈধভাবে উত্তোলন চালিয়ে আসছিল কতিপয় অসাধু বালু ব্যবসায়ী। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পর দু-একদিন বন্ধ থাকলেও পুনরায় রাতের আঁধারে নদীর বিভিন্ন স্থানে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছিল। এমতাবস্থায় মঙ্গলবার বেলা এগারোটার দিকে রামচন্দ্রকুড়া ইউপি চেয়ারম্যান স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে নিয়ে মন্ডলিয়াপাড়া এলাকার ভজপাড়ায় নদীতীর রক্ষায় অবৈধভাবে স্থাপন করা বালু উত্তোলনকারী মেশিনগুলো ধ্বংস ও জব্দ করতে যান।

এসময় বালু ব্যবসায়ীরা লাঠিসোটা নিয়ে প্রতিহত করতে আসে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হেলেনা পারভিন এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সঞ্চিতা বিশ্বাস ওই স্থানে গিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় ১৫টি বালু উত্তোলনকারী মেশিন জব্দ করে তা নিলামে দেওয়া হয়।

এছাড়াও ভোগাই নদীর নিজপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১টি ও কালাকুমা ব্রিজপাড় এলাকায় আরও ২টি মেশিন অকার্যকর করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ বিষয়ে ইউএনও এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হেলেনা পারভিন জানান, জব্দকৃত মেশিনগুলো নয়াবিল ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুস আলী দেওয়ানের জিম্মায় রাখা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের কক্ষে এসব ড্রেজার মেশিন প্রকাশ্য নিলামে বিক্রি করা হবে।