নুসরাত জাহান মুক্তার কবিতা "আজ দিনটা বড্ড অদ্ভুত"

নুসরাত জাহান মুক্তার কবিতা "আজ দিনটা বড্ড অদ্ভুত"
কবি নুসরাত জাহান মুক্তা

কবিতা- আজ দিনটা বড্ড অদ্ভুত

নুসরাত জাহান মুক্তা  

আজ দিনটা জানো, বড্ড অদ্ভুত!
কেউ বলে, জীবনের সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ দিন
কেউ বলে, জীবনের সবচেয়ে মঙ্গলময় দিন
কেউ বলে, জীবনের নতুন অধ্যায় শুরুর দিন
আজ যে, তোমার জীবনের সুন্দরতম দিন।

আজ জানো, আমার হাতে শিকলবাঁধা
আজ জানো, আমি বাকরুদ্ধ
আজ জানো, আমি এক অস্তিত্বহীন প্রেমিকা
আজ জানো, আমি এক একাকী পথিক।

আজ দিনটা জানো, বড্ড অদ্ভুত! 
সবাই ভেবেছিলো,
তোমায় তারা আজ উইশ করবে
তোমার মঙ্গলকামনা করবে
তোমাকে খুশি করবে
তোমাকে নিয়ে মেতে থাকবে।

অথচ, এই আজ! কি হচ্ছে?
ভেবো না।
আমি তোমায় তোমার অজান্তে উইশ করে দিবো
যা কখনো ভাবিনি
অথচ, ভাগ্য আমায় তা করতে বাধ্য করছে!

আজ আমার তোমায় ভালোবেসে শুভ সকাল বলার কথা,
আজ আমার তোমায় ভালোবেসে শুভ জন্মদিন বলার কথা,
আজ আমার তোমায় ভালোবেসে উপহার দেওয়ার কথা।

অনেক আশা ছিলো,
জানো?
তোমায় উইশ করবো রাত ঠিক বারোটাই,
তোমায় উপহার দিবো।

ভেবে রেখেছিলাম, 
তোমার হাতে ঘড়ি নেই যেহেতু... সেহেতু একটি ঘড়ি কিনে দিবো।
সেই ঘড়ি তোমার হাতে থাকবে সবসময়,
সেই ঘড়ি তোমায় আমার কথা মনে করিয়ে দিবে সবসময়।

অথচ, ভাগ্যের কি অদ্ভুত নিয়ম বলো তো?
আজ এসব কিছুই হবে না!
তুমি যে আমার থেকে বড্ড দূরে।
ওই নরপিশাচরা তোমায় আমার থেকে অনেক দূরে পাঠিয়ে দিলো!

আমার উইশ করবার অধিকার কেড়ে নিলো!
আমার উপহার দেওয়ার সেই পাগলামী ভাব কেড়ে নিলো!
ওরা তোমায় মেরে ফেললো কাব্য!
ওরা আমার থেকে আমার কবিতাদের থেকে তোমায় কেড়ে নিলো।

আজ আমি একা দাঁড়িয়ে চাঁদ দেখে দেখে,
সেই কিনে রাখা ঘড়ি হাতে নিয়ে বলছি,
কাব্য, শুভ জন্মদিন....
যেখানেই থেকো, ভালো থেকো!