পুতিন ইউক্রেনে রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্র ব্যবহারের পরিকল্পনা করছে : বাইডেন

পুতিন ইউক্রেনে রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্র ব্যবহারের পরিকল্পনা করছে : বাইডেন
ছবি: সংগৃহীত

আন্তর্জা তিক ডেস্ক।। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সোমবার বলেছেন, এটি “স্পষ্ট” যে রাশিয়া ইউক্রেনে রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্রের ব্যবহারের চিন্তা করছে এবং তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, রাশিয়া যদি এটি বেছে নেয় তবে তাদের কঠোর পশ্চিমা প্রতিক্রিয়ার মুখোমুখি হতে হবে।
যুক্তরাষ্ট্র ইউরোপে রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্র মজুদ করে রেখেছে- ভ্লাদিমির পুতিনের সাম্প্রতিক এই অভিযোগের জবাবে বাইডেন বলেন, “তার পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে।”
ওয়াশিংটনে ব্যবসায়ী নেতাদের সমাবেশে বাইডেন বলেন, “এটি শুধু সত্য নয়, রাশিয়ার রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্রের হামলার ব্যাপারে আমি আপনাদের গ্যারান্টি দিচ্ছি।”
তিনি বলেন, “ইউক্রেনে রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্র রয়েছে বলে রাশিয়া অভিযোগ করছে, এতে স্পষ্ট বোঝা যায় যে পুতিন এই দুটি অস্ত্র ব্যবহার করার বিষয় বিবেচনা করছেন।”
ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ান কর্মকর্তারা মার্কিন সমর্থিত রাসায়নিক অস্ত্র কর্মসূচি আড়াল করার অভিযোগ তোলার পর এই মাসের শুরুর দিকে বাইডেন প্রশাসনের পাশাপাশি পশ্চিমা দেশগুলো ইউক্রেনে রাশিয়ার রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্রের হামলার আশঙ্কার কথা বলে আসছে।
হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি এক টুইটে বলেছেন, “এখন যেহেতু রাশিয়া এই মিথ্যা অভিযোগ করেছে...আমাদের সকলকে বুঝতে হবে রাশিয়া সম্ভবত ইউক্রেনে রাসায়নিক ও জীবাণু অস্ত্র ব্যবহার করবে অথবা এগুলো ব্যবহার করে মিথ্যা অভিযোগ তুলতে পারে।”
বাইডেন সোমবারও এ কথা পুনব্যক্ত করেছেন যে, রাশিয়ার এ ধরণের পদক্ষেপ “গুরুতর” পরিস্থিতি তৈরি করবে এবং পশ্চিমা মিত্রদের মধ্যে কঠোর  প্রতিক্রিয়ার উদ্রেক করবে।
ন্যাটো জোট কি ধরণের পদক্ষেপ নেবে তা উল্লেখ না করে বাইডেন বলেন, পুতিন “জানেন যে ন্যাটো জোটের কারণে তাদের গুরুতর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে।”
একইভাবে মার্কিন জরুরি অবকাঠামোর বিরুদ্ধে রাশিয়ার সাইবার হামলা হলে এর প্রতিক্রিয়ার  ব্যাপারেও তিনি সতর্ক করে দেন।- (বাসস)