পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ীতে অফিস সময়ের আগেই চাল বিতরণ শেষ

পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ীতে অফিস সময়ের আগেই চাল বিতরণ শেষ
ছবি: সংগৃহীত

আবু তাহের, স্টাফ রিপোর্টার।।পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ীতে ভিজিএফ-এর চাল বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম। ট্যাগ অফিসার ও ইউপি সচিবের অনুপস্থিতিতেই চাল বিতরণ শুরু করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার ১নং কিশোরগাড়ী ইউনিয়নে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা-কে সামনে রেখে অত্র ইউনিয়নে ৫ হাজার ৭’শ টি পরিবারের মাঝে ১০ কেজি করে চাল সরকার বরাদ্দ দেয়। ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যগণের যোগসাজোসে ওয়ার্ড ভিত্তিক চাল ভাগ-বাটোয়ারা করে ৬ জুলাই ২ হাজার ৭’শটি পরিবারের মাঝে সকাল ৯টার মধ্যেই সংশ্লিষ্ট ট্যাগ অফিসার ও ইউপি সচিব উপস্থিত হওয়ার আগেই ২ হাজার ৭’শটি পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ করা হয়েছে।

দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্যাগ অফিসার উপজেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজার রহমান ও ইউপি সচিব নাজমুল হক সাড়ে ৮টার সময় উপস্থিত হয়ে বিতরণ প্রায় শেষের পথে দেখতে পাই। সকাল ৯টার সময় তাদের ভিজিএফের চাল বিতরণ সমাপ্ত করা হয়েছে। ফলে তালিকাভূক্ত অনেককে চাল না পেয়ে বাড়ী ফিরে যেতে দেখা যায়। 

এব্যাপারে অত্র ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক-কে অনিয়ম ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, তালিকাভুক্ত যে সকল সুবিধাভোগী চাল পায়নি তারা আমার কাছে আসলে ইউপি সদস্যদের নিকট থেকে চাল আদায় করে দিয়ে দিব। 

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রেজাউল করিম-কে অনিয়মের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, আজ চাল বিতরণ করা হবে তা আমাকে অবগত করা হয়নি। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুজ্জামান নয়ন জানান, অফিস সময়ে চাল বিতরণের নিয়ম। এতো সকালে চাল বিতরণের বিষয়টি আমিও জানিনা। তবে চাল বিতরণ স্থগিত করা হয়েছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।