ফতুল্লা ইউপি নির্বাচন,প্রার্থীরা পেল প্রতীক

ফতুল্লা ইউপি নির্বাচন,প্রার্থীরা পেল প্রতীক
ছবিঃ সংগৃহীত

মোঃকাউসার (নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি)।।নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহনকারী প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) সকাল ১১টা থেকে বিকাল ২ টা পর্যন্ত জেলা নির্বাচন অফিসের সম্মেলন কক্ষে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।


জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৪ জনকে, সাধারণ সদস্য (মেম্বার) পদে ৯৮ জনকে ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ২৫ জনকে প্রতীক দেওয়া হয়েছে।

এই দিন সদর চেয়ারম্যান পদে আওয়মী লীগ মনোনীত প্রার্থী খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপনকে নৌকা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মো. শাহ জাহান আলীকে হাতাপাখা, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. দেলোয়ার হোসেনকে আনারস এবং আলী আজমকে ঘোড়া প্রতীক দেয়া হয়।

সংরক্ষিত নারী সদস্য পদ ১,২ ও ৩নং ওয়ার্ড থেকে ঝর্ণা বেগম মাইক, উম্মে তাহেরা বক, কাজী রোকসানা সূর্যমুখী ফুল, রুমা আক্তার বই, শারমিন আক্তার ক্যামেরা এবং বিউটি বেগম কলম প্রতীক দেয়া হয়।

৪,৫ ও ৬নং ওয়ার্ড থেকে শাহিদা বেগম সূর্যমুখী ফুল, মহসিনা আক্তার মাইক, আখি বক, লাইজু রহমান মুন্নি বই, লাভলী আক্তার তালগাছ, ফেরদৌস আরা অনা কলম, শিউলি আক্তার হেলিকপ্টার, সালমা বেগমকে সাঁকো, হাসি বেগমকে জিরাফ এবং ফাহমিদা আক্তারকে কলস প্রতীক দেয়া হয়।

৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ড থেকে আইমুন সুলতানা রুবা সূর্যমুখী ফুল, নাজনিন আক্তার কলম, রুমা ইসলাম তালগাছ, রহিমা আক্তার ক্যামেরা, জেসমিন বই, পারুল আক্তার মাইক,বিউটি আক্তার হেলিকপ্টার এবং নার্গিস পারভীনকে বক প্রতীক দেয়া হয়।

সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ড থেকে আবুল বাশার টিউবওয়েল, মিলন হোসেন ফুটবল, নিসার আহমেদ তালা, আব্দুল আজিজ লাটিম, আরমান হোসেন মোরগ, এম এ রহিম বৈদ্যুতিক পাখা, মো.জামাল মিয়া ঘুড়ি, মো.সুমন ক্রিকেট ব্যাট এবং হাসমত আলীকে আপেল প্রতীক দেয়া হয়।

২নং ওয়ার্ড থেকে উজ্জ্বল সরদার টিউবওয়েল, মো. আনিসুর রহমান ফুটবল, শেখ মোহাম্মদ মেহেদী হাসান শাহীন মোরগ, রাশেদুল ইসলাম রাশেদ তালা, শওকত আলী আপেল, বিল্লাল হোসেন ঘুড়ি, জাকির হোসেন প্রধান বৈদ্যুতিক পাখা, কামরুল ইসলাম লাটিম, আব্দুর রব ক্রিকেট ব্যাট এবং আমিন উদ্দিন আহমেদকে ভ্যান গাড়ী প্রতীক দেয়া হয়।

৩ নং ওয়ার্ড থেকে রিফাত এ মান্নান তালা, রফিকুল হাসান ফুটবল, সৈয়দ আমান উল্লাহ মোরগ, জহিরুল ইসলাম আপেল, আব্দুল মান্নান টিউবওয়েল, হুমায়ন কবির ভ্যান গাড়ী, শেখ মো. মামুন ক্রিকেট ব্যাট, শামীম আহমেদ বৈদ্যুতিক পাখা, মো. সোহেল রানা লাটিম, মো.শাহীন হোসেন টর্চ লাইট, মো.শহিদুল হোসেন পানির পাম্প, মো. শাহীন দেওয়ান হাতি, রফিকুল ইসলাম প্রধান হাঁস, আব্দুল বাতেন ঘুড়ি এবং কাজী মাইনুদ্দিনকে পানির পাম্প প্রতীক দেয়া হয়।

৪নং ওয়ার্ড থেকে মো. শরীফুল ইসলাম ঘুড়ি, আবু বকর সিদ্দিক ক্রিকেট ব্যাট, মো.তানজিল খান আপেল, মো. ফেরদৌস খান মোরগ, মো. মোতালিব হোসেন ফুটবল, মো.শরিফুদ্দিন ভ্যানগাড়ী, মো. রাসেল মিয়া তালা, মো. পারভেজ প্রধান লাটিম, আক্তার হোসেন টর্চ লাইট, কাজল চৌধুরী বৈদ্যুতিক পাখা এবং মেহেদী হাসান জুয়েলকে টিউবওয়েল প্রতীক দেয়া হয়।

৫নং ওয়ার্ড থেকে মো.জুলহাস মিয়া ঘুড়ি,আনোয়ার হোসেন আপেল, মো. বাহার উদ্দিন লাটিম, মো. জসিম উদ্দিন মোরগ,আলী নূর মুন্সি বৈদ্যুতিক পাখা, মাজহারুল সুমন ফুটবল, জিয়াউর রহমান তালা, মো.ওহিদুল ইসলাম ভ্যানগাড়ী, ইউসুফ টর্চ লাইট, রিয়াজ উদ্দিন প্রধান পানির পাম্প এবং আল ইমরানকে টিউবওয়েল প্রতীক দেয়া হয়।

৬নং ওয়ার্ড থেকে মো. জাহিদুল ইসলাম তালা, মো. ফরিদ আপেল, সোহেল সিকদার ঘুড়ি, মাজহারুল ইসলাম ফুটবল, মো. মামুন বৈদ্যুতিক পাখা, মো. আব্দুল বাসেদ মোরগ, মো. আব্দুল আউয়াল টিউবওয়েল, জসিম উদ্দিন টর্চ লাইট, জাহিদ হাসান লাটিম, গোলাম মোস্তফা ভ্যান গাড়ি এবং মোকাদ্দেস ক্রিকেট ব্যাট প্রতীক দেয়া হয়।

৭নং ওয়ার্ড থেকে জাকির হোসেন মোরগ, আওলাদ হোসেন ফুটবল, নজরুল ইসলাম সেলিম ঘুড়ি, মোহাম্মদ আলী কামাল তালা, কামাল উদ্দিন আপেল, রেজাউল করিম বৈদ্যুতিক পাখা, সাইফুল ইসলাম লাটিম, মুসলিম প্রধান ভ্যান গাড়ী, মতিউর রহমান টর্চ লাইট, রবিউল ইসলাম পানির পাম্প এবং রবিউল আউয়ালকে টিউবওয়েল প্রতীক দেয়া হয়।

৮নং ওয়ার্ড থেকে আজিবুর রহমান আপেল, নাজমুল হোসেন সবুজ ঘুড়ি, কাজী সাঈদ ফুটবল, আহসান উল্লাহ খোকন মোরগ, মো. সানজিল হোসেন তালা, মো. তামিম আহমেদ লাটিম, আবু সায়েম মোল্লা ক্রিকেট ব্যাট, কাজী সারোয়ার হোসেনকে ভ্যান গাড়ী প্রতীক এবং মো আরিফুর রহমান বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীক দেয়া হয়।

৯নং ওয়ার্ড থেকে মো. রেহান শরীফ ঘুড়ি, মো.আব্দুল গফুর মোরগ,এটিএম মহসীন রানা ফুটবল, মো. মেহেদী মোহাম্মদ আপেল, মো. কামাল হোসেন তালা, মো. রহিজ উদ্দিন টর্চ লাইট, মো. আমজাদ হোসেন লাটিম, মো. মাসুদ রানা টিউবওয়েল, শেখ নাজমুল হক ক্রিকেট ব্যাট এবং মো. আলামিনকে বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীক দেয়া হয়।