বাউফলে কিশোরীকে বিয়ে করা চেয়ারম্যানের বরখাস্তের আদেশ স্থগিত

বাউফলে কিশোরীকে বিয়ে করা চেয়ারম্যানের বরখাস্তের আদেশ স্থগিত
ছবিঃ সংগৃহীত

মো.ফোরকান,বাউফল,পটুয়াখালী।। ৮জুলাই,বৃহস্পতিবার।।পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ওই ইউপির এক কিশোরীকে বিয়ে করার কারনে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ একমাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। ২৮ জুন স্থানীয় সরকার মন্ত্রাণালয় থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। সাময়িক বরখাস্তের বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার হাইকোর্টে রিট করলে শুনানির শেষে  হাইকোর্ট বরখাস্তের আদেশ ১মাসের জন্য স্থগিত করেছেন। গত বুধবার  (৭ জুলাই) বিচারপতি এম এনায়েতুর রহমানের বিশেষ  হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন ১মাস অথবা নিয়মিত আদালত খোলা পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ কার্যকর থাকবে বলে আদেশে জানানো হয়।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রাণালয়ের বরখাস্তের আদেশ স্থগিত চেয়ে চেয়ারম্যান শাহিন হাওরাদারের পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন সুপ্রিমকোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন,সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিষ্টার শফিক আহমেদ ।রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন ডেপুটি অ্যার্টনি জেনারেল বিপুল বাগমার ।
উল্লেখ্য,চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার সালিশ বৈঠকে ক্ষমতার অপব্যহার করে অপ্রাপ্তবয়স্ক কিশোরীকে বিয়ে করার কারনে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৪ (৪)(ঘ) ধারার অপরাধ সংঘটিত করায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।কেন তাকে চুড়ান্তভাবে অপসারণ করা হবে না তা পত্র প্রাপ্তির ১০কার্যদিবসের মধ্যে তার জবাব সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রেরণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ২৮ জুন স্থানীয় সরকার বিভাগের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।
 এরপর অপ্রাপ্ত কিশোরীকে বিয়ে করায় পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রাণালয়ে সচিবের কাছে একটি প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে।
এবিষয় চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার বলেন,মহামান্য হাইকোর্ট ন্যায়ের পক্ষে রায় দিয়েছেন।