বাউফলে মা, ছেলেকে বেঁধে রেখে বসত ঘরে আগুন

বাউফলে মা, ছেলেকে বেঁধে রেখে বসত ঘরে আগুন
ছবি: সংগৃহীত

মো.ফোরকান, বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি পটুয়াখালীর বাউফলে পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরে মা ও ছেলেকে বেঁধে রেখে বসত ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। 

গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার বগা ইউনিয়নের বামনিকাঠীর সন্যাসিকান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

বসত ঘরের মালিক মমতাজ বেগম জানান, তার স্বামী শহিদ মোল্লা ঢাকায় রাজমিস্ত্রীর কাজ করেন। বাড়িতে তিনি ও তার ছেলে থাকেন। তার স্বামীর সাথে প্রতিপক্ষ একই এলাকার ইউনুস খানের ছেলে বশির খানের পাওনা  টাকা নিয়ে  বিরোধ চলে আসছিলো। ঘটনার দিন রাত ২টার দিকে প্রতিপক্ষ  বশির খান (৩৫) ও  জুয়েল খান (৩০) এর নেতৃত্বে ৭-৮ জন লোক তাদের বসত ঘরের পিছনের খোলা জানালা দিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে তাকে ও তার ছেলে রাকিব (১৮) কে প্রথমে ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে ফেলে। এরপর রশি দিয়ে হাত ও পা বেঁধে  বসত ঘরের ১শ গজ দূরে মুগডাল ক্ষেতে ফেলে রাখে। 
তারপর তাদের বসত ঘরটি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলে। 

গভীর রাতে আগুনের লেলিহান শিখা দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসেন এবং ফায়ারসার্ভিস স্টেশনে খবর দেন।  ফায়ারসার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে আসার আগেই বসত ঘরটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। 

ঘটনার পর থেকে প্রতিপক্ষের লোকজন গাঢাকা দেয়ায় তাদের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি। 
এছাড়া তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

 উপজেলা নিবার্হী অফিসার আল আমিন বলেন, তিনি খবর পেয়ে ঘটনাস্থান পরিদর্শন করে আগুনে বসতবাড়ি পুড়ে যাওয়া পরিবারের মধ্যে নগদ আর্থিক সহায়তা ও খাদ্য প্রদান করেন।

 বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে, তদন্ত করে আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।