বাউফলে স্বেচ্ছাসেবক দলের সভায় হামলা, আহত ১০

বাউফলে স্বেচ্ছাসেবক দলের সভায় হামলা, আহত ১০
ছবি: সংগৃহীত

মো.ফোরকান,বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি।। পটুয়াখালীর বাউফল সদর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের পূর্ব নির্ধারিত একটি কর্মী সভায় হামলা চালিয়ে সভা ভন্ডুল করে দিয়েছে ছাত্রলীগ কর্মীরা। এ ঘটনায় কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।  

আজ শুক্রবার (১০ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে উজেলার ৯৮ নং গোসিংগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ওই ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, সদর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দল আজ শুক্রবার কর্মীসভার আয়োজন করে।এ উপলক্ষে তাঁরা গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে গোসিংগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে প্যান্ডেল করে। আজ সকাল ১০ টার দিকে ওই কর্মীসভা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কর্মীসভা শুরু হওয়ার আগেই ছাত্রলীগের কর্মীরা সকাল নয়টার দিকে হামলা চালিয়ে সভাস্থলের শতাধিক চেয়ার ও কয়েকটি টেবিল ভেঙে ফেলে। এমন খবর পেয়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের আহ্বায়ক মো. খলিলুর রহমান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক মো. লিটন ও সদস্য সচিব মো. নাইম আহম্মেদ তারেক সিকদারের নেতৃত্বে একটি দল ওই সভাস্থলে উপস্থিত হন। পরে তাঁরা হামলা ও ভাঙচুরের প্রতিবাদে প্রতিবাদ সমাবেশ শুরু করে। সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে স্থানীয় ছাত্রলীগের ১৫-২০ জনের একটি দল ফের ওই প্রতিবাদ সমাবেশে হামলা চালায়। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে লিটন, নাইম আহম্মেদ,  মো. সজিব, মিরাজ হোসেন ও আমিনুল ইসলামকে  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক মো. লিটন বলেন, বাউফল পৌরসভা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি মো. আরিফ খানের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের একটি দল রাম দা, হকিষ্টিক, লাঠিসোঁটা নিয়ে দুই দফায় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও তাঁদের নেতা-কর্মীদের মারধর করে আহত করেছে। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে ছাত্রলীগ নেতা আরিফ মুঠোফোনে সভা বন্ধ করে দেওয়ার জন্য হুমকি দিয়েছিলেন।

এ বিষয়ে আরিফ খান অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দলীয় কোন্দলের জেরে হামলা ও মারামারির ঘটনা ঘটেছে। তিনি এবং ছাত্রলীগের কোনো নেতা-কর্মী ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত না।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আল মামুন বলেন, খবর পেয়ে সভাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। কিছু চেয়ার ভাঙচুর হয়েছে এবং কয়েকজন  নেতা-কর্মী আহত হওয়ার খবর পেয়েছি। তবে কারা কি উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।