বখাটের কবল থেকে বোনকে বাঁচাতে গিয়ে ভাই ও বোন হামলার শিকার : দুই বখাটে গ্রেফতার

বখাটের কবল থেকে বোনকে বাঁচাতে গিয়ে ভাই ও বোন হামলার শিকার : দুই বখাটে গ্রেফতার
ছবি: সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার, ১২ জুন।। একদল বখাটে কর্তৃক বোনকে ইভটিজিং এবং ভাইয়ের প্রতিবাদ অতঃপর ভাই ও বোনকে নির্যাতনের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে  ভাইরাল হয়। কক্সবাজার জেলা পুলিশের তৎপরতায় নির্যাতনকারী দুইজন বখাটে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১১ জুন দিনগত রাতে এদের গ্রেফতার করা হয়।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) শেখ মুনীর উল গীয়াস রবিবার ১২ জুন দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ঘটনাটি অবগত হওয়ার পর শনিবার রাতেই পুলিশের দুটি টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়।
তারা সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে দুই জনকে আটক করেছে।
অভিযুক্ত আরেকজনের নাম মোহাম্মদ জামাল। তাকে ধরতে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান ওসি গীয়াস।

জানা গেছে, গত ৩১ মে কক্সবাজার সদরের খুরুশকুল প্রধান মন্ত্রীর আশ্রায়ন প্রকল্পের বাসিন্দা মৃত হাবিব উল্লাহর ছেলে মোনাফ (১৯) ও মেয়ে নাফিজা আক্তার রিনা(১৮)
তাদের পুরাতন বাড়ী কুতুবদিয়া পাড়া ফদনার ডেইল হতে নিজ বাড়ী আশ্রায়ন প্রকল্পে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে  খুরুশকুল আশ্রয়ন প্রকল্পের বেক্সিমকো কোম্পানীর বেড়ী বাঁধের রাস্তার উপর সন্ধ্যা আনুমানিক সাড়ে ৫ টার সময় পৌছালে স্থানীয় তিনজন বখাটে পথরোধ করে বিভিন্ন ধরনের বাজে মন্তব্য করতে থাকে। ভাই মোনাফ (১৯) তার বোনকো ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় বখাটেরা তাকে সহ তার বোনকে বেধড় মারধর ও বোনকে শ্লীলতাহানী করে। 
আরও জানা যায়, ১১ জুন ভাই ও বোনকে প্রকাশ্যে মারধরের ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে কক্সবাজার জেলা পুলিশের তাৎক্ষণিক প্রচেষ্টায় জেলা পুলিশের একাদিক টিম নির্যাতনকারী বখাটেদের গ্রেফতার অভিযান চালায়।
১১ জুন দিনগত রাতে গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত বখাটে ১। রায়হান (২০), পিতা-সুরত আলম, সাং-মনুপাড়া, খুরুশকুল, কক্সবাজার সদর ও মোঃ আরমান (২০), পিতা-নুরুন্নবী, সাং-কুলিয়া পাড়া, খুরুশকুল,কক্সবাজার সদরকে। 
কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) শেখ মুনীর উল গীয়াস জানান, গ্রেফতারকৃত বখাটেদের বিরুদ্ধে ১২ জুন ভিকটিমের মা হাফেজা খাতুন বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।