বানারীপাড়ার কৃষক আনিচ  উজিরপুরে প্রজেক্ট করে অসহায় 

বানারীপাড়ার কৃষক আনিচ  উজিরপুরে প্রজেক্ট করে অসহায় 
ছবিঃ সংগৃহীত

নাহিদ সরদার  বানারীপাড়া প্রতিনিধি।। ১৫ জুন, মংগলবার।। বরিশালের বানারীপাড়া থেকে উজিরপুর উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নের দোসতিনা গ্রামে জমি ক্রয় করে

আনিসুর রহমান মাছের ঘের ও বিভিন্ন ধরণের সবজি চাষের প্রকল্প গ্রহন করায় এলাকার কতিপয় লোকজনের প্রতিহিংসার শিকার হয়ে সফলতার মুখ দেখতে পারছেন না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানাগেছে,আনিসুর রহমান গুঠিয়া ইউনিয়নের দোসতিনা গ্রামের খাইরুল হাওলাদার ও তার কতিপয় ওয়ারিশগনের পৈত্রিক ওয়ারিশ সম্পত্তি থেকে ৯৮ শতাংশ জমি কিনে নেন।

(যার মৌজা দোসতিনা, জেএল নং-১১৫, এসএস খতিয়ান নং-৪৮১, দাগ নং-১০৬৪)

ওই জমির ওপরে আনিসুর রহমান তার ছোট ভাই আজিমের সহায়তায় একসাথে মাছ ও সবজি চাষ শুরু করেন। প্রকল্পে লভাংশ আসার শুরুতেই যোগাযোগের জন্য একটি রাস্তা নির্মাণ বিশেষভাবে প্রয়োজন হয়ে পরে তখন আনিসুর রহমান যাদের কাছ থেকে জমি কিনেছেন তাদেরকে সাথে নিয়ে নিজ জমি থেকে সড়ক পর্যন্ত কাচা কেটে রাস্তা তৈরি করার সময় বাধা দেয় একই এলাকার, সালাম হাওলাদারের ছেলে শাহনাজ কবির (৪০), শাহাদাৎ হোসেন (৩০), সাকিব হাওলাদার (২০), সালাম হাওলাদারের স্ত্রী পারুল বেগম।

প্রতিপক্ষের তুমুল বাঁধার মুখে রাস্তা নির্মাণ বন্ধ হয়ে গেলে জমির মূল মালিকগনের পক্ষে খাইরুল হাওলাদার বাদী হয়ে উল্লেখিত ব্যক্তিদের বিবাদী করে উজিরপুর মডেল থানায় চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারী একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

মোট সম্পত্তির মধ্য থেকে ৪০ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হলে তা নিয়ে এখন পর্যন্ত বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। বিরোধীয় সম্পত্তিতে বাদী পক্ষরা নিয়মিত চাষাবাদ করছেন। আদালতে মামলা থাকার পরেও স্থানীয়ভাবে বহুবার শালিশ মিমাংশার দিনক্ষণ ধার্য করেও বিবাদীরা সময়মতো হাজির হননি। পরে ওই সম্পত্তিতে তারা গায়ের জোরে ধানের বীজ রোপন করতে গেলে বাদীপক্ষদ্বয় নিষেধ করলে খাইরুলসহ কতেক স্বাক্ষীকে এলোপাতারিভাবে মারধর করে।

পরে জমির দখল না ছাড়লে পুনরায় মারধর, বাড়ি ঘর জ্বালিয়ে দিয়ে এলাকা ছাড়া করাসহ বিভিন্ন ধরণের হুমকি-ধামকি দিয়ে তাদেরকে জমি থেকে বিতারিত করে দেয়। বর্তমানে বাদী পক্ষ নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। এদিকে আনিসুর রহমান তার ঘের সংলগ্ন জমির পাশ ঘেষে রাস্তা নির্মাণ করতে না পাড়ায় বড় ধরণের লোকসানের মূখে পড়বে বলে এলাকার সাধারণ মানুষরা ধারনা করছেন।