বিরল রোগে আক্রান্ত বকুল মিয়া'র বাঁচার আকুতি

বিরল রোগে আক্রান্ত বকুল মিয়া'র বাঁচার আকুতি
ছবি: সংগৃহীত

আবু তাহের, স্টাফ রিপোর্টার।।দীর্ঘ ২৩ বছর ধরে চিকিৎসা ব্যয়ে সর্বস্ব হারিয়ে  নিঃস্ব হয়েছেন বকুল মিয়া (৪০)। গোটা শরীরে ফোসকা, বাঁচতে হলে চিকিৎসা চালাতেই হবে। তাছাড়া তার কোমরের নীচে দুটি বাটি জরুরী ভিত্তিতে অপারেশন দরকার। বকুল মিয়া পীরগঞ্জ উপজেলার দুরামিঠিপুর গ্রামের বাদশা মিয়ার পুত্র।

তিনি জানান, ২৩ বছর পূর্বে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চর্ম ও যৌন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার আব্দুর রউফের আওতাধীন দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিই। এতে কোন আরোগ্য না হওয়ায় চিকিৎসকের পরামর্শে ঢাকা পিজি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে সেখানেও কোন আরোগ্য না হওয়ায় ডাক্তার কামরুল হাসান জায়গিরদারের পরামর্শে ২০১৫ সালে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারতের চেন্নাই এপোলো হাসপাতালে সিরাম প্লাজমা বিভাগে ভর্তি হই। সেখানে বেশ কিছুদিন চিকিৎসার পর চিকিৎসকরা সাফ জানিয়ে দেন- যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন চিকিৎসা চালাতে হবে। 
এদিকে দ্রুত সময়ের মধ্যে তার সিরাম প্লাজমা ও কোমরের নীচে দুটি বাটি অপারেশন করাতে হবে। এতে প্রায় ৬লক্ষ টাকা প্রয়োজন।

এরই মধ্যে চিকিৎসা ব্যয় বহন করতে বকুল মিয়া পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া সবটুকু জমিজমা বিক্রি করে এখন সহায় সম্বলহীন। তবুও বকুল মিয়ার স্বপ্ন এই সুন্দর ধরণীতে সাধারণ মানুষের মত বেঁচে থাকার। তাই তিনি সরকারসহ সমাজের বিত্তবানদের নিকট বাঁচার আকুতি জানিয়ে সহযোগিতা কামনা করেছেন। তার মোবাইল নম্বর ০১৭৩৯-৮৯০৪৭১, একাউন্ট নং- ২১৯৩৪১৮ সোনালী ব্যাংক পীরগঞ্জ শাখা।