বিসিএস কর্মকর্তাদের উপর হামলার প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে কলেজ শিক্ষকদের মানববন্ধন

বিসিএস কর্মকর্তাদের উপর হামলার প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে কলেজ শিক্ষকদের মানববন্ধন
ছবি: সংগৃহীত

বিকাশ রায় চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার।। ময়মনসিংহের গফরগাঁও সরকারি কলেজে নামধারী কিছু ছাত্র-সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে কলেজ ভাঙচুর ও চাঁদার দাবিতে শিক্ষকদের মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিবাদে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি দেশব্যাপী কর্ম-বিরতির ডাক দিলে আজ রবিবার (১২জুন) ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ ইউনিটির শিক্ষকরা বেলা ১১টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী কর্ম-বিরতি ও মানববন্ধন পালন করেন।

মানববন্ধনে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ ইউনিটির সভাপতি, অধ্যক্ষ প্রফেসর মো: আব্দুল জলিল এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সহ-সভাপতি, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর জিন্নাতুন নাহার, সাধারণ সম্পাদক, সহযোগী অধ্যাপক মো: মাহামুদ হাসান ও সহযোগী অধ্যাপক মো: রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

মানববন্ধনে শিক্ষকেরা বলেন, আমরা শিক্ষক মানুষ। লাঠিশোঠা নিয়ে রাস্তায় নামতে পারিনা। তাই শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করতে চাই। গফরগাঁও সরকারি কলেজে শিক্ষকদের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে আমরা ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ মানববন্ধন করছি। নামধারী কিছু ছাত্র-সন্ত্রাসীর হুমকির কারণে আমরা অনিরাপদ বোধ করছি। শিক্ষক জাতির মেরুণ্ড। আমরা ছাত্র-ছাত্রীদের সন্তানের মত করে গড়ে তুলছি। তারাই যখন আমাদের লাঞ্চিত করে অপমান, অপদস্ত করে তখন আমরা অত্যন্ত ব্যাথিত ও কষ্ট পাই। আমরা আর কত লাঞ্চিত হবো ? কত মার খাবো? শিক্ষক সমাজ কি কোন দিনই সু-বিচার পাবে না। আর কত মার খেলে সুবিচার পাবো? এদের কাছে আমরা জিম্মি। আমরা যেন নিরাপদে কলেজ করতে পারি। এবং গফরগাঁওয়ের ঘটনায় সন্ত্রসীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানাছি সরকারের কাছে।

প্রসঙ্গ : গফরগাঁও সরকারি কলেজের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা চাঁদা না পেয়ে অধ্যক্ষ  শিক্ষকদের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছিল। এর মধ্যে গত (৮জুন) বুধবার দুপুরে চাঁদার দাবিতে ছাত্রলীগ কর্মীরা কলেজে প্রবেশ করে ব্যাপক ভাঙচুর করে।  সময় তারা কলেজের ক্যাশ শাখা থেকে গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র নিয়ে যায়।  সময় ছাত্রলীগ কর্মীরা কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মুহাম্মদ ইমরাম হোসাইন  সহযোগী অধ্যাপক মো. আবু রেজোয়ানকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। পরে ছাত্রলীগের ভাঙচুর  শিক্ষকদের লাঞ্ছিত করার ঘটনায় ছাত্রলীগ কর্মীদের নামে গফরগাঁও থানায় লিখিত অভিযোগ করেন কলেজের অধ্যক্ষ।