বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন লক্ষ্মীপুরের হোসাইন আহমদ হেলাল

বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন লক্ষ্মীপুরের হোসাইন আহমদ হেলাল
ছবি: সংগৃহীত
এস এম আওলাদ হোসেন,লক্ষ্মীপুর।।দেশের তৃণমূল সাংবাদিকতায় অবদান রাখার স্বীকৃতি হিসেবে প্রতি জেলা থেকে একজন করে মোট ৬৪ জন প্রবীণ ও গুণী সাংবাদিকদের মধ্যে লক্ষ্মীপুর জেলা থেকে বিশেষ সম্মাননা গ্রহণ করেছেন গুণী সাংবাদিক হোসাইন আহমদ হেলাল।
এ উপলক্ষ্যে সোমবার (৩০ মে) সন্ধ্যায় রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) জাঁকালো অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল মালেক বলেন, মফস্বল সাংবাদিকতায় অবদান রাখায় বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০২১ পেয়েছেন লক্ষ্মীপুরের কৃতিসন্তান সাংবাদিক হোসাইন আহমদ হেলাল। তিনি লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের পাঁচ বারের নির্বাচিত সভাপতি ও তিন বারের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ছিলেন। বর্তমানেও তিনি লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। লক্ষ্মীপুর জেলা উন্নয়ন বাস্তবায়ন পরিষদের সদস্য সচিবেরও দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি লক্ষ্মীপুর জেলার বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসহ সামাজিক সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন। তিনি তার বাবা ডা. আহসান উল্ল্যাহর প্রতিষ্ঠিত একটি এতিমখানা পরিচালনা করছেন। সাংবাদিকতায় তিনি বর্তমানে দৈনিক নতুনচাঁদ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশকের দায়িত্ব পালন করছেন। গুণীজন হিসেবে  লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি হোসাইন আহমদ হেলালকে মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড দেওয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম পাবেল বলেন, গুণী সাংবাদিক হোসাইন আহমদ হেলাল তার ৪০ বছরের সাংবাদিকতা পেশায় বসুন্ধরা মিডিয়া তাকে সম্মানিত করেছেন। আমরা চাই বসুন্ধরা গ্রুপের এই উদ্যোগ অন্যরাও অনুসরণ করুক। মফস্বলের সাংবাদিকদের মূল্যায়ন হোক।
হোসাইন আহমদ হেলাল বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের এই উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। তারা অসাধারণ কাজ করেছে। অনেক সম্মননা পেয়েছি কিন্তু এটা ছিল ব্যতিক্রমী। এটা আমার জীবনের শেষ প্রান্তে সেরা প্রাপ্তি। পরবর্তী প্রজন্ম সাংবাদিকতা পেশায় উৎসাহিত হবে বসুন্ধরা গ্রুপের এ উদ্যোগে। মফস্বলে যারা সাংবাদিকতা করেন তাদের অনেক বড় ভূমিকা গণমাধ্যমে রয়েছে। তাই মফস্বলে কাজ করা সাংবাদিকদের সুখ-দুঃখে খবর রাখার অনুরোধ করেন হোসাইন আহমদ হেলাল।
তিনি আরও বলেন, আমি সাংবাদিকতার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে দেখেছি। পুরষ্কার সাংবাদিকদের বস্তুনিষ্ঠ কাজে উৎসাহ প্রদান করবে। ভবিষ্যতে আরও ভালো কাজ করতে উৎসাহ যোগায়।