ভক্তদের প্রশংসায় সিক্ত তিনি

ভক্তদের প্রশংসায় সিক্ত তিনি

ভক্তদের প্রশংসায় সিক্ত তিনি
মেহজাবীন চৌধুরী

নান্দনিক অভিনয়ে তরুণ প্রজন্মের অভিনেত্রীদের মধ্যে এগিয়ে রয়েছেন মেহজাবীন চৌধুরী। গত কয়েক বছর ধরেই ছোটপর্দায় রাজত্ব করছেন নন্দিত এই তারকা। অভিনয় গুণে ছোট-বড় সবার কাছেই হয়ে ওঠেছেন প্রিয়। নির্মাতাদের কাছে ওঠেছেন আস্থার প্রতীক। এবার ঈদে প্রচারিত বেশ কিছু নাটকে হয়েছেন প্রশংসিত; অভিনয় দাপুটে রয়েছেন এগিয়ে।

নানা সীমাবদ্ধতার মধ্য দিয়েই করোনা পরিস্থিতিতে ঈদের কাজ করেছেন টিভি পর্দার তুমুল ব্যস্ত ও জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। এবার ঈদে তার অভিনীত ১২টি নাটক প্রচারিত হয়েছে। যার মধ্যে নির্বাসন, অবাক প্রেম, প্রাণপ্রিয়, কেন, মিস্টার অ্যান্ড মিস চাপাবাজ, স্বার্থপর, নাটকগুলো দর্শকমহলে বেশ প্রশংসিত হয়েছে।

কাজগুলো থেকে বেশ ভালো সাড়া পাওয়ায় বেশ উচ্ছ্বসিত এই অভিনেত্রী। তিনি বলেন, গত রোজার ঈদে তো তেমন কাজ করতে পারিনি, এবার ঈদের আগ মুহূর্তে কাজে ফিরে চেষ্টা করেছি নতুন কিছু করার। নতুন পুরানো মিলিয়ে এবার ঈদে আমার ১২টি কাজ প্রচার হয়েছে। অনেক সীমাবদ্ধতার মধ্য দিয়ে এবার আমরা কাজ করছি। তারপরও যতটা করতে পেরেছি তাতেই সন্তুষ্ট। দর্শকদের কাছ থেকে অনেক ভালো সাড়া ও পজেটিভ মন্তব্য পেয়েছি। বেশিরভাগ নাটকই অল্প সময়ে মিলিয়ন ভিউ পার করেছে। দর্শকের কাছে ভালো লাগছে, এটাই আনন্দ।

তিনি আরও বলেন, এবার ঈদে চেষ্টা করেছি ভিন্নতা রেখে কাজ করতে। তাই কিছু কমেডি, কিছু সিরিয়াস, কিছু রোমান্টিক, কিছু স্যাড সবকিছু মিলিয়ে কাজ করেছি। দর্শকরা এই কাজগুলো থেকে আমাকে একটু অন্যরকমভাবে দেখবে। তাদের জন্য সব ধরনের ফ্লেভার রেখেই কাজ করেছি।

ঈদ কেমন কাটালেন—এমন প্রশ্নে মেহজাবীন বলেন, ঈদ অন্যান্য সময়ের মতই কেটেছে, কোনো নতুনত্ব নেই। কারণ দেশের পরিস্থিতির কারণে কোথাও বের হওয়া যাচ্ছে না। ঘরে বসেই পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়েছি। নিজের পাশাপাশি অন্যদের কাজগুলো দেখেছি। অন্যের কাজগুলো দেখে নিজের ভুল-ত্রুটি শোধরানোর বা নিজেকে আরও ডেভেলপ করার চেষ্টা করি সবসময়। নিজের কাজের বাইরে অন্যদের কাজ দেখা হয়? তিনি বলেন, আশফাক নিপুণ পরিচালিত ‘অযান্ত্রিক’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি দেখেছি। এই কাজটা বেশ ভালো লেগেছে আমার। এতে সাবিলা নূর অভিনয় করেছে। বেশ ভালো করেছে। এছাড়া ‘ইতি, মা’ নাটকটি দেখেছি। আমার কাছে চমত্কার লেগেছে।

আমাদের এখানে কাউকে এপ্রিশিয়েট করার বিষয়টা একদম কম। অন্য একজনের কাজ ভালো হলে সেটাকে ভালো বলা; এরকমটা খুব একটা দেখি না। আমাদের এই চর্চাটা করা জরুরি। এতে করে অন্য একজন শিল্পী যেমন ভালো কিছু করতে উদ্বুদ্ধ হবে তেমনি অন্য শিল্পীর প্রতি সহনশীলও হবে।

শুটিংয়ে ফিরবেন কবে থেকে? এমন প্রশ্নের জবাবে মেহজাবিন বলেন, ঈদের আগে যেহেতু খুব চাপ ছিল তাই সর্বোচ্চ সতর্কতা মেনে কাজে ফিরেছি। অনেক সীমাবদ্ধতায় তাড়াহুড়ো করে কাজ করেছি চাপ নিয়ে। যেহেতু ঈদ শেষ তাই কোনো তাড়াহুড়ো করতে চাই না। এখন কোনো চাপ নিতে চাচ্ছি না। কিছুদিন বিশ্রাম নেব। পরিস্থিতি বুঝে নিরাপত্তা মেনে যখন মনে হবে কাজ করা দরকার তখন কিছু কাজ করব। টানা কাজ করব না, অনেকটা সময় গ্যাপ দিয়ে দিয়ে কিছু কাজ করব। যে কারণে এখনও কাউকে শিডিউল দেইনি।