মধুপুরে স্ত্রীর বিরুদ্ধে ডাকাতির অভিযোগ

মধুপুরে স্ত্রীর বিরুদ্ধে ডাকাতির অভিযোগ
ছবিঃ সংগৃহীত

হাফিজুর রহমান।। টাঙ্গাইল।।টাঙ্গাইলের মধুপুরে হত্যার হুমকী দিয়ে স্ত্রীর পূর্ব পরিকল্পনায় ডাকাতির অভিযোগ তুলেছেন এক স্বামী। এ ঘটনায় স্ত্রী ঈতিশা পারভিন ইমু (২৯) তাঁর সহযোগী জুয়েল রানা, রতন মিয়া ও রেজাউল করিমে বিরুদ্ধে গত শনিবার (২৮ আগষ্ট) মধুপুর থানার লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ইমুর স্বামী মো. হাবিবুর রহমান। হাবিবুর রহমান উপজেলার গোলাবাড়ী ইউনিয়নের লোকদেও গ্রামের মৃত হাছেন আলী জোয়াদারের ছেলে।

অভিযোগ ও ভূক্তভোগী পরিবার থেকে জানা যায়, ২০১১ সালে ময়মনসিংহের মুক্তগাছা উপজেলার নিমুরিয়া গ্রামের রেজাউল করিমের মেয়ে ইমুকে বিয়ে করেন হাবিবুর। দাম্পত্য জীবনের দুইটি সন্তান হলেও টালবাহানা শুরু করে ইমু। ইমুর বোনের বিয়ে কথা বলে শ্বশুড় দুই লাখ টাকা ধার নেয়। পরবর্তীতে টাকা ফেরত চাইলে ইমু ক্ষিপ্ত হয়ে তাঁর বাবার বাড়ির জুয়েল রানা, রতন মিয়া ও রেজাউল করিমকে ডেকে আনে। বাড়ির লোকজনকে হত্যার হুমকী দিয়ে  ঘরে থাকা নগদ ১২ লাখ টাকা ও ৫ ভরি স্বর্ণ নিয়ে সিএনজিযোগে তাঁরা চলে  যায়। 

এ ব্যাপারে অভিযোগকারী স্বামী হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আমি বাড়িতে না থাকার সুবাধে স্ত্রী ইমু ও তাঁর পরিবারের লোকজন এসে আমার ঘরে ডাকাতি করে। বৃদ্ধা মা ও অন্যদের হত্যার হুমকি দেয় তাঁরা। এখন আমার সন্তান  অসহায় হয়ে পড়েছে।

জানাতে চাইলে স্ত্রী ইমুর ব্যবহৃত মোবাইলে ফোনে তার চাচা রতন মিয়া বলেন, ‘এ অভিযোগটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। বিষয়টি টাঙ্গাইলের এডিসি, মধুপুরের ইউএনও এবং থানার ওসি জানানে।’

গোলাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তাফা খাঁন বাবলু জানান, ‘আমি ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছি। ঘরের সব এলোমেলো। দিনে দুপুরে এটা ডাকাতি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।’  

মধুপুর থানার ওসি মোহাম্মদ মাজহারুল আমিন বলেন, ‘এ ব্যাপারে স্বামী হাবিবুর রহমান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’