মানিকগঞ্জে হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

মানিকগঞ্জে হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার
ছবি: সংগৃহীত

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি।। ঢাকা জেলার ধামরাই এলাকা থেকে মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুরের চাঞ্চল্যকর হালিম খান হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী মবজেল (৩৩) কে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।

লে. কমান্ডার মোহাম্মদ আরিফ হোসেন জানান, নিহত হালিম খান (৩০) মানিকগঞ্জ সদর ও হরিরামপুর এলাকায় ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতো। ঘটনার অনুমান ০৭/০৮ দিন পূর্বে আসামী মবজেলসহ অন্যান্য আসামীদের সাথে মোটরসাইকেলের ভাড়া নিয়ে নিহত হালিমের কথাকাটাকাটি ও মারামারির প্রেক্ষিতে আসামীরা ক্ষিপ্ত হয়ে হালিমকে হত্যার পরিকল্পনা করে। তাদের পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ১৪ মার্চ ২০১৪ তারিখ আসামী মবজেল ও ছমির মানিকগঞ্জ সদর থানাধীন বলড়া এলাকা থেকে হরিরামপুর উপজেলায় ওয়াজ-মাহ্ফিলে যাওয়ার কথা বলে ল হালিম এর মোটরসাইকেল ভাড়া করে। গভীর রাতে মবজেল ও ছমির হালিমের মোটরসাইকেলে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়। হরিরামপুর সদর থানা থেকে কিছুদূর আসার পর পূর্ব থেকে অপেক্ষারত অন্যান্য আসামীরা পথ রোধ করে হালিমের গাড়ি থামায়। এরপর হালিমের মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক মবজেলসহ আসামীরা ধরে পদ্মা নদীর চরে নিয়ে যায় এবং হালিমের গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে নির্মমভাবে হত্যা করে। হালিমের হত্যা নিশ্চিত করার জন্য তারা হালিমের হাতের ও পায়ের রগ কেটে ফেলে।

তিনি আরো জানান, উক্ত ঘটনায় হালিমের স্ত্রী ফরিদা বাদী হয়ে আসামী মবজেল ও তিনজন আসামীর বিরুদ্ধে হরিরামপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং- ০২ তারিখঃ ১৮/০৩/ ২০১৪ ধারা- ৩৬৪/৩০২/৩৭৯/৪১১/১০৯ পেনাল কোড এবং উক্ত মামলার আসামী হিসেবে হরিরামপুর থানা পুলিশ ছমিরকে গ্রেফতার দেখিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করে। ঘটনার কিছুদিন পর বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনায় পলাতক থাকা অবস্থায় আসামি বাতেনের মৃত্যু হয় এবং হরিরামপুর থানা পুলিশ রাজ্জাক কে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। কিন্তু ঘটনার পর হতে অদ্যবধি আসামী মবজেল পলাতক ছিল। আদালত হালিমকে হত্যাকান্ডে সরাসরি সম্পৃক্ত থাকার অপরাধে এপ্রিল ২০১৭ সালের দিকে চার্জশিটে অভিযুক্ত আসামী মবজেলকে যাবজ্জীবন সাজা প্রদান করেন। উক্ত ঘটনার পর হতে আসামী মবজলে দীর্ঘ ০৮ বছর যাবত পলাতক ছিলো এবং গ্রেফতার এড়াতে স্থান পরিবর্তন করে আত্মগোপনে চলে যায়। 

 গ্রেফতারকৃত আসামীকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।