রাঙ্গুনিয়ার লালানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত 

রাঙ্গুনিয়ার লালানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত 
ছবিঃ সংগৃহীত
এম. মতিন, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি।। আসন্ন আগামী ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য রাঙ্গুনিয়া উপজেলার লালানগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মীর তৌহিদুল ইসলাম কাঞ্চনকে নৌকা মার্কা প্রতিকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে এক নির্বাচনী বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার (১৫ নভেম্বর) রাতে  চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যানের নিজ বাস ভবনে ১৫ নং লালানগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আয়োজনে নৌকার প্রার্থী মীর তৌহিদুল ইসলাম কাঞ্চনের বিজয় নিশ্চিত করতে ও নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার জন্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

লালানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ শামসুল আলম তালুকদারের সভাপতিত্বে ও মীর গোলাম মোস্তফা বাবুল ও উপজেলা যুবলীগ নেতা মাহমুদুল হাসানের সঞ্চালনায় বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও রাঙ্গুনিয়া পৌর মেয়র আলহাজ্ব শাহাজাহান শিকদার 
 সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবদুর রহীম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব জসিম উদ্দিন তালুকদার, মোঃ ইকবাল, সিরাজুল করিম বিপ্লব, নাসির উদ্দীন রিয়াজ, মাস্টার ওমর ফারুক, মহিউদ্দিন তালুকদার, কাজী মঈন উদ্দিন, আলহাজ আবদুল গফুর।
বর্ধিত সভা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারণ করে প্রধান অতিথি আলহাজ্ব শাহাজাহান শিকদার বলেন, নৌকা বঙ্গবন্ধুর প্রতীক, নৌকা জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক, নৌকা রাঙ্গুনিয়ার গণ মানুষের নেতা তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের প্রতীক, নৌকা স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা এ দেশের সাধারণ মানুষের প্রতীক তাই যারা নৌকা ও দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে নির্বাচন করবে, তাদের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আওয়ামীলীগের সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী নৌকার পক্ষে আছে। আগামী ২৮ নভেম্বর লালানগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ কাজ করার আহবান জানান তিনি। 
ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার বলেন, যারা দলের শৃংখলা ভঙ্গ করে নৌকার বিপক্ষে প্রার্থী হয়েছেন, তাদের স্থান আওয়ামী লীগে নেই। আর যারা নৌকার বিপক্ষে কাজ করছেন এখনও সময় আছে ফিরে এসে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করুন। কেননা নৌকা বঙ্গবন্ধুর প্রতীক, জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক, নৌকা এ দেশের সাধারণ মানুষের প্রতীক।
আসুন আমরা নিজেদের মধ্যে বিবেধ ভূলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করি।