রাঙ্গুনিয়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী কামাল বাহিনীর প্রধান কামাল গ্রেপ্তার, ওসিসহ আহত-৩

রাঙ্গুনিয়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী কামাল বাহিনীর প্রধান কামাল গ্রেপ্তার, ওসিসহ আহত-৩
ছবি: সংগৃহীত
এম. মতিন, চট্টগ্রাম ব্যুরো।।চট্টগ্রামের দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী কামাল বাহিনীর প্রধান কামাল প্রকাশ মদন্যা কামালকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করেছে সদ্যঘটিত দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার পুলিশ। এ সময় কামাল বাহিনীর সাথে গোলগুলিতে ওসিসহ ৪ জন গুরতর আহতে হয়েছেন । 
মঙ্গলবার (৫ জুলাই) রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পদুয়া ইউনিয়নে আজিমপুর মহিষের বাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন- দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার ইনচার্জ (ওসি) ওবায়দুল ইসলাম  উপ-পরিদর্শক আবল ফয়েজ জুয়েল, কনস্টেবেল জিয়া ও সন্ত্রাসী মদন্যা কামাল। তাদেরকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ সময় অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী কামালকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।  
গ্রেপ্তারকৃত কামাল ওরফে মদন্যা কামালের বাড়ি সরফভাটা ইউনিয়নের মীরেরখীল বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে সন্ত্রাসী মদন্যা কামালের অত্যাচারে অতিষ্ঠ সরফভাটা ও পদুয়ার এলাকাবাসী। বিশেষ করে সরফভাটা ১ নং ওয়ার্ডের মিরেরখিল, হাজারিখিল এলাকাসহ পাশ্ববর্তী পদুয়া ও বোয়ালখালীর খরণ দ্বীপ, চরণদ্বীপ ইউনিয়নে চুরি-ডাকাতি মাদক ব্যবসা, অস্ত্র বিক্রি,  মুক্তিপণ আদায়, জায়গা দখল ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে কামাল-তোফায়েল বাহিনী।
মঙ্গলবার রাত ১১ টার দিকে পদুয়ায় পাহাড়ে কামাল বাহিনীর ৭-৮ জনের একটি গ্রুপ ডাকাতির প্রস্তুতি নেওয়ার খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার পুলিশের একটি দল। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে ১০ রাউন্ড পাল্টা গুলি ছুঁড়লে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। এ সময় ২টি অস্ত্র ও ৫ রাউন্ড গুলিসহ ডাকাত দলের সর্দার কামাল বাহিনীর প্রধান মদন্যা কামালকে  আহত অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়।
দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওবায়দুল ইসলাম বলেন, দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানা প্রতিষ্ঠির পর থেকে এই কামাল বাহিনীর বিরুদ্ধে অসংখ্য অভিযোগ আসছিল। আমরা তাকে ধরতে কয়েকবার অভিযানও পরিচালনা করেছি। মঙ্গলবার রাতে সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পদুয়া ইউনিয়নের আজিমপুর মহিষের বাম এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে কামালসহ তার সঙ্গে থাকা লোকজন পুলিশের ওপর গুলি ছূঁড়ে। এতে আমিসহ পুলিশের ২সদস্য আহত হয়। পরে কামাল বাহিনীর প্রধান কামালকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হই।
তিনি আরও বলেন, কামাল রাঙ্গুনিয়া, বোয়ালখালী ও বান্দরবান সীমান্ত এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলা, ধর্ষণ, চাঁদাবাজি, মাদক, অস্ত্র ও ডাকাতিসহ বিভিন্ন ঘটনায় একাধিক মামলা রয়েছে।  
আজ (৬ জুলাই) চট্টগ্রাম আদালতে সোপর্দ তাকে করা হবে বলে জানান তিনি।