রাজানগরে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন হাজী জাহাঙ্গীর, পূনরায় চেয়ারম্যান ইঞ্জি: শামসু

রাজানগরে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন হাজী জাহাঙ্গীর, পূনরায় চেয়ারম্যান ইঞ্জি: শামসু
ছবিঃ সংগৃহীত
এম. মতিন, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি।। দলীয় সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান এবং দলের নির্দেশ মেনে ও দলের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করতে আসন্ন রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১নং রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন ১নং রাজানগর ইউনিয়নের হেভিওয়েট স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীর।
মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১১ টায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীরের বাস ভবনে রাঙ্গুনিয়ার সাংসদ তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপির ছোট ভাই এন এন কে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর এ ঘোষণা দেন তিনি। 
এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গুনিয়ার মেয়র আলহাজ্ব শাহাজাহান শিকদার, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইদ্রিস আজগর, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু ছৈয়দ, সাধারণ সম্পাদক আবু জাফরসহ রাজানগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মী ও জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীরের কর্মী সমর্থকেরা।
নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়ে জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীর বলেন, 'আমাদের প্রিয় নেতা ড. হাছান মাহমুদ এমপির নির্দেশে আওয়ামী লীগের স্বার্থে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য আমি দলের মনোনীত নৌকার প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালাম।'
তিনি আরও বলেন, 'আমি ৪০ বছর ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িয়ে আছি। তাই দলের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে রাঙ্গুনিয়ার মাটি ও মানুষের নেতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ভাইয়ের নির্দেশে নৌকার প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদারকে (নৌকা মার্কার) প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিলাম।’
চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও রাঙ্গুনিয়ার মেয়র আলহাজ্ব শাহাজাহান শিকদার বলেন, ‘নৌকার মনোনয়ন না পেয়ে খানিকটা অভিমান করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীর। আমরা তার অভিমান ভাঙ্গাতে সক্ষম হয়েছি। তাই সকল দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে এখন থেকে নৌকার প্রার্থীর প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচার প্রচারণা থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। এবং আজ-কালের মধ্যেই মনোনয়ন প্রত্যাহার করবেন। আর মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পূনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন নৌকার প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার। 
তিনি আরও বলেন, নৌকার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র বা বিদ্রোহী প্রার্থীর বিষয়ে রাঙ্গুনিয়ার সাংসদ তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ মহোদয়ের কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। আমার ছোট ভাই জাহাঙ্গীর মন্ত্রী মহোদয়ের সেই নির্দেশনার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে নৌকার প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়ে দলের প্রতি যেই আনুগত্য দেখিয়েছেন। দল অবশ্যই তার এই আনুগত্য ও উদারতাকে মূল্যয়ন করবেন বলে আশাবাদী।
প্রসঙ্গত, জামাল উদ্দিন মোস্তফা জাহাঙ্গীর রাজানগর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান। তাছাড়া তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। তিনি এবার দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন।