রামুতে বিয়ের তিনদিন আগে যুবতিকে এসিড নিক্ষেপ 

রামুতে বিয়ের তিনদিন আগে যুবতিকে এসিড নিক্ষেপ 
ছবিঃ সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার, ৬ জুলাই।। বিয়ের পিড়িতে বসা হলো না যুবতি তৈয়বা। বিয়ের মাত্র তিনদিন আগেই তৈয়বা নামের ওই যুবতীরকে এসিডে নিক্ষেপে মুখ ঝলসে দেয়া হয়েছে।

কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের মাঝির কাটা এলাকায় ৬ জুলাই ভোররাত আড়াই টার দিকে এঘটনা ঘটেছে। 
আহত যুবতিকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসিডে মুখ ঝলসে যাওয়া তৈয়বা গর্জনিয়া ইউনিয়নের মাঝির কাটা এলাকার মোজাফফর আহামদের মেয়ে। আগামী শুক্রবার তার বিয়ের দিন ধার্য ছিল।
রামু থানার ওসি আনোয়ারুল হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। 
পুলিশ ও এলাকাবাসী এবং পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, 
রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের মাঝির কাটা এলাকার মোজাফফর আহামদের মেয়ে তৈয়বা প্রতিদিনের মত ৬ জুলাই মঙ্গলবার রাত ২ টা ৩০ মিনিটের সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে মায়ের সাথে বাহিরে বের হন। কিন্তু কে জানতো এই রাতে নরপশুদের হাতে তৈয়বার জন্য অপেক্ষা করছিল এক ভয়ংকর মুহূর্ত? মায়ের পাহারাও তাকে রক্ষা করতে পারেনি নরপশুদের কবল থেকে। কিছু বুঝে উঠার আগেই নরপশুরা এসিড ছুঁড়ে ছুঁড়ে তৈয়বার মুখে। এতে তার মুখ ঝলসে যায়। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলেরা
এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে জানান তৈয়বার পিতা মোজাফফর আহামদ।
আহত তৈয়বাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 
আগামী শুক্রবার তৈয়বার বিয়ের দিন ধার্য ছিল।
এখন বিয়ের স্বপ্ন ভেঙ্গে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে তৈয়বা।
রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল হোসেন জানান, ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযোগ পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা। নেয়া হবে। 
এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানান এলাকাবাসী।