রামু থানার উজ্জ্বল নক্ষত্র ওসি কে এম আজমিরুজ্জামান 

রামু থানার উজ্জ্বল নক্ষত্র ওসি কে এম আজমিরুজ্জামান 
ছবিঃ সংগৃহীত

আমানউল্লাহ আনোয়ার :রামু।। ০৭ মে, শুক্রবার।। মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার সাধারণ মানুষের মাঝে এ আস্থা অর্জনে দিনরাত  পরিশ্রম করে যাচ্ছেন রামু থানার অফিসার্স ইনচার্জ ওসি কে এম আজমিরুজ্জামান।

রামু উপজেলার সর্বস্তরের অপরাধ জনিত সকল ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সফলতার উন্মোচন করে মানুষের মাঝে বিশ্বাস স্থাপন করেছেন।

 তাছাড়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে মাদক-জোয়া-ইয়াবা ব্যবসায়ী নির্মূলে প্রশংসার একমাত্র দাদার আইনের সুশাসন মানুষের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেয়ার এক দুর্বার সৈনিক। 
করোনা যুদ্ধে সংক্রমণ রোধে কর্মস্থল রামু উপজেলার মানুষের মাঝে জনসচেতনা বৃদ্ধির জন্য দুর্বার গতিতে দিনরাত ছুটে চলছেন তিনি।

ইতিমধ্যে করোনা প্রতিরোধ তৎপরতায় প্রশংসিত হয় উঠেছেন এলাকার মানুষের কাছে প্রতিনিয়ত কর্মতৎপরতার মধ্যে সরকারি নির্দেশনা আলোকে এলাকার বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে করোনা বিষয়ক সচেতনতা মূলক মতামত অব্যাহত রেখেছেন। এছাড়া এলাকাভিত্তিক ব্যক্তি উদ্যোগে করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া অস্বচ্ছল পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সহ তাদের সাথে করোনা সচেতনতা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দিকনির্দেশনা করে আসছেন। 

পাশাপাশি করোনায় যুদ্ধের মধ্যেও এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে দিনরাত নিরলস চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।এ ব্যাপারে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় রামু প্রেসক্লাবের  প্রতিষ্টাতা সভাপতি আমির হোসেন (হেলালি) জানান,তিনি শুধু কর্মকর্তা নন তিনি হলেন বাংলাদেশ পুলিশের গৌরব। 

ওসি আজমিরুজ্জামান  রামু থানায় যোগদানে পরবর্তী কর্মগুণে সম্প্রতি সময়ের মধ্যে এলাকার মানুষের মনিকোঠায় জায়গা করে নিয়েছেন, রামু থানার অফিসার্স ইনচার্জ আজমিরুজ্জামান সব সময় একথা বলেন। করোনা যুদ্ধ শুধু আমাদের বাংলাদেশের একার না, এটা বৈশ্বিক মহামারী, পুলিশের ভূমিকার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের ভূমিকা অনেক, সরকারি আইন মেনে চলুন, আপনাদের যে কোন সমস্যার জন্য আমার সাথে সরাসরি যোগাযোগ করুন আমরা পুলিশ প্রশাসন আপনাদের পাশে