লক্ষ্মীপুরে কিশোর গ্যাংদের হামলায় সাংবাদিকের ভাই আহত, আটক-২

লক্ষ্মীপুরে কিশোর গ্যাংদের হামলায় সাংবাদিকের ভাই আহত, আটক-২
ছবি: সংগৃহীত

এস এম আওলাদ হোসেন, সিনিয়র রিপোর্টার।। লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার জকসিন বাজারে কিশোর গ্যাং সদস্যদের হামলায় রওশন জাহান ইস্টান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিসাব রক্ষক আবুল হাসান সোহেল আহত হয়েছে। আহত সোহেলকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় জিহাদ হোসেন ও কামাল হোসেন নামে দুইজনকে গলধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করেছে স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার সকালে এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহত আবুল হাসান সোহেল ইনডিপেনডেন্ট টিভি, আজকের পত্রিকা ও নিউজবাংলা২৪ ডটকম এর লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি আব্বাছ হোসেনের ছোট ভাই।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে সদর উপজেলার মাগুড়ীতে নিজ কর্মস্থল রওশন জাহান ইস্টান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাচ্ছিলেন আবুল হাসান সোহেল। এসময় জকসিন বাজারে সিএনজি অটোরিকসার জাম লেগেছিল। এক পর্যায়ে আবুল হাসান সোহেল সিএনজি থেকে নেমে অন্য সিএনজিগুলোকে সাইটে দাঁড়াতে বলে। এর জের ধরে বখাটে কিশোর গ্যাং সদস্য জিহাদ হোসেনের নেতৃত্বে কয়েকজন তার ওপর হামলা চালিয়ে আহত করে। পরে তার ব্যবহৃত মোবাইল ও নগদ টাকা নিয়ে যায় তারা।

এক পর্যায়ে বাজারের ব্যবসায়ীরা বখাটে জিহাদ হোসেন ও কামাল হোসেনকে আটক করে গলধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করে। অভিযোগ রয়েছে, কিশোর গ্যাং সদস্য জিহাদ হোসেন প্রায় এলাকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। কথায় কথায় মানুষদের মারধর করার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। পাশাপাশি এলাকায় মাদককাসক্ত ও নেশাখোর হিসেবে চিহিৃত রয়েছে।

এ ঘটনায় একইদিন দুপুরে আহত আবুল হাসান সোহেলের বড় ভাই সাংবাদিক আব্বাছ হোসেন বাদী হয়ে সদর থানায় হত্যা চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় আটককৃত জিহাদ হোসেন ও কামাল হোসেন ছাড়াও আরো ৫জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত সোহেল জানায়, কিছু বুজে উঠার আগে কিশোর গ্যাং সদস্য জিহাদ হোসেনের নেতৃত্বে  বখাটেরা আমার ওপর হামলা চালায়। এসময় মোবাইল সেট ও নগদ টাকা লুটে নিয়ে যায়। এঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবী জানান তিনি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো. মোসলেহ উদ্দিন জানান, হামলার ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠনো হয়েছে। জিহাদ হোসেন ও কামাল হোসেন নামে দুইজনকে আটক করা হয়। এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।