লক্ষ্মীপুরে খালের স্রোতে নিখোঁজ শ্রমিক বাবুলের মৃতদেহ ৩০ ঘণ্টা পর উদ্ধার

লক্ষ্মীপুরে খালের স্রোতে নিখোঁজ শ্রমিক বাবুলের মৃতদেহ ৩০ ঘণ্টা পর উদ্ধার
ছবিঃ সংগৃহীত
এস এম আওলাদ হোসেন, সিনিয়র রিপোর্টারঃলক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ওয়াপদা খালে স্রোতে তলিয়ে যাওয়ার ৩০ ঘণ্টা পর নির্মাণ শ্রমিক বাবুল হোসেনের (৪৫) মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার দিঘলী ইউনিয়নের পশ্চিম দিঘলী গ্রামে খালে ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস।
মৃত বাবুল ময়মনসিংহ জেলার গৌরিপুর গ্রামের সঞ্জু মিয়ার ছেলে ও সেতু নির্মাণ শ্রমিক। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে।
 
এর আগে, বুধবার সকাল ৬টার দিকে নির্মাণাধীন ওয়াপদা ব্রিজের কাজে ব্যবহৃত একটি ছোট ড্রাম উদ্ধার করতে গিয়ে বাবুল পানির স্রোতে তলিয়ে যান। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ৭ ঘণ্টা উদ্ধারচেষ্টা চালিয়েও সন্ধান পাননি।
বৃহস্পতিবার দুপুরে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় আধাকিলোমিটার দূরে ইসলাম পাটওয়ারী বাড়ির সাঁকো এলাকায় তার মৃতদেহ ভাসতে দেখেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের অভিযানিক দল ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে।
লক্ষ্মীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক লিটন আহমেদ বলেন, মৃতদেহ ভেসে উঠেছে বলে স্থানীয়ভাবে আমাদের খবর দেওয়া হয়। আমাদের একটি টিম ঘটনাস্থল গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে।
চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একে ফজলুল হক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল এসেছি। নিহতের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।