লক্ষ্মীপুর পৌরসভা ও ২০ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ চলছে

লক্ষ্মীপুর পৌরসভা ও ২০ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ চলছে
ছবিঃ সংগৃহীত
এস এম আওলাদ হোসেন, সিনিয়র রিপোর্টার।।তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর পৌরসভা ও ২০টি ইউপিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্য দিয়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে। সকাল ৮ থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে একটানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। কেন্দ্রে ভোটরদের উপস্থিতি ছিল বেশ চোখে পড়ার মতো। নারী পুরুষ ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন। সুষ্ঠ ভোট অনুষ্ঠানে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ৯ প্লাটুন বিজিবি, ১৮জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব, পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে।
এদিকে ভোটের আগেই জেলার রামগঞ্জ নির্বাচনী এলাকার মধ্য ভাদুর এলাকা থেকে ৩১ জনকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্রসহ আটক করা হয়। এসময় একটি এলজি, ৪টি চাপাতি, ৯টি ককটেলসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার ও তাদের ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে। শনিবার (২৭ নভেম্বর) গভীর রাতে উপজেলার ভাদুর ইউনিয়নের মধ্য ভাদুরযুগী বাড়ির একটি বাসা থেকে তাদের আটক করা হয়।
জানা যায়, লক্ষ্মীপুর পৌরসভায় ২৮টি কেন্দ্রে ৭১ হাজার ৩২২ জন ভোটার তাদের ভোটারাধিকার প্রয়োগ করবে। এখানে মেয়র পদে ৪ জন, ১৫টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৮০ জন ও মহিলা কাউন্সিলর পদে ২০জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। অন্যদিকে রায়পুরে ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে ৩টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন ও সদস্য এবং মহিলা সদস্য পদে ১১ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন। রামগঞ্জ ও রায়পুরের ২০টি ইউপিতে ১৯২টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। এসব ইউনিয়নগুলোতে চেয়ারম্যান পদে ১৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 
এসব ইউনিয়নের প্রতিটিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থীর পাশাপাশি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরাও শক্ত অবস্থানে রয়েছেন। ২০ ইউপিতে মোট ভোটার সংখ্যা রয়েছে ২ লাখ ৯৩ হাজার ৩২২ জন। এসব ভোটাররা এখন তাদের পছন্দের প্রার্থী নির্বাচনে অবাধ ও সুষ্ঠু ভোটের জন্য অধির অপেক্ষায় রয়েছেন।
লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার ড. এএইচএম কামরুজ্জামান বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য পুলিশ যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় তৎপর রয়েছে। নাশকতার চেষ্টাকালে ৩১জনকে অস্ত্রসহ আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলাসহ পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জনান তিনি।
জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ জানান, অবাধ ও নিরপেক্ষ সুষ্ঠ ভোট অনুষ্ঠানে সব ধরণের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। মাঠে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নিয়োজিত রয়েছে।