সাগরে মালেশিয়াগামী ট্রলারডুবি : রোহিঙ্গা নারীসহ ৪৫ জন জীবিত ও ৩ মরদেহ উদ্ধার : নিখোঁজ -৩৭

সাগরে মালেশিয়াগামী ট্রলারডুবি : রোহিঙ্গা নারীসহ ৪৫ জন জীবিত ও ৩ মরদেহ উদ্ধার : নিখোঁজ -৩৭
ছবি: সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার, ৪ অক্টোবর।। সাগর পথে মালয়েশিয়ায় যাত্রা কালে ট্রলারডুবির ঘটনায় তিন রোহিঙ্গা নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এরআগে রোহিঙ্গা নারীসহ ৪৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করেছে  পুলিশ ও কোস্ট গার্ডের সদস্যরা।

এদের মধ্যে ৪ জন দালাল রয়েছে। তবে, ডুবে যাওয়া ট্রলারটির খোঁজ মিলেনি। এখনো নিখোঁজ রয়েছে আরো অন্তত ৩৭ জন নারী ও পুরুষ। 


বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নুর মোহাম্মদ জানান, মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) ভোর ৪ টার দিকে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের হলবনিয়া নৌঘাটে সাগরে মালয়েশিয়াগামী ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে।  


খবর পেয়ে পুলিশ ও কোস্ট গার্ড সদস্যরা বিকাল তিনটা পর্যন্ত তিন রোহিঙ্গা নারীর মরদেহ উদ্ধার করে। 
এছাড়াও নারী ও পুরুষসহ ৪৫ জনকে বিপন্ন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।


তিনি জানান, উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে 
৪ জন বাংলাদেশী দালালকে আটক করা হয়েছে। 
আটক হওয়া বাংলাদেশী দালালরা হলেন, টেকনাফ কাটাবনিয়া এলাকার হাসান আলীর ছেলে শহিদ উল্লাহ (২৮), মহেশখালী উপজেলার তাজিয়াকাটা এলাকার করিম উল্লাহর ছেলে মোহাম্মদ সেলিম (২৪), মহেশখালী উপজেলার ঘড়িভাঙা আব্দুর রশিদের ছেলে কুরবান আলী (২২), ঈদগাঁও ইসলামপুর হাজী পাড়ার রশিদ আহম্মদের ছেলে আব্দুল্লাহ। তাদেরকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। 


টেকনাফ থানার অফিসার ইনচার্জ  ওসি হাফিজুর রহমান জানান, উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গাদের স্ব স্ব ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হবে। 


মরদেহগুলো মর্গে পাঠানো হয়েছে। ডুবে যাওয়া ট্রলার ও নিখোঁজদের উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে পুলিশ, কোস্টগার্ড ও দমকল বাহিনী। 


আটক দালাল শহীদ উল্লাহ ও মোহাম্মদ সেলিম সাংবাদিকদের জানান, মালয়েশিয়াগামী ট্রলারটি মহেশখালীর। সোমবার রাতে ছোট ছোট মাছ ধরার নৌকা যোগে বাহারছড়ার বিভিন্ন ঘাট দিয়ে রোহিঙ্গাদেরকে সাগরে অপেক্ষমান ট্রলারে নিয়ে যাওয়া হয়। দালালরাই মালয়েশিয়াগামী যাত্রীদের বাহারছড়া শামলাপুরের বিভিন্ন আস্তানায় রেখেছিল। ডুবে যাওয়া ট্রলারে ৮৫ জন নারী ও পুরুষ ছিল বলে জানান তারা।